ব্রিটিশ নৌবাহিনীতে ঘটতে পারে পরমাণু বিপর্যয়

আমাদের নতুন সময় : 19/05/2015

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ব্রিটিশ রাজকীয় নৌবাহিনী দেশটির পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ডুবোজাহাজ কর্মসূচির নিরাপত্তা ত্র’টি সম্পর্কে তদন্ত শুরু করেছে। অনুসন্ধানী ওয়েবসাইট উইকিলিকসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ৩০টি ত্র’টির কথা ফাঁস করে দেয়ার পর এ তদন্ত শুরু হল। ব্রিটিশ নৌবাহিনীর উইলিয়াম ম্যাকনেইলি নামের এক সমরাস্ত্র বিষয়ক প্রকৌশলী এ সব ত্র’টি ফাঁস করে দিয়েছেন। ব্রিটেনে যেকোনো সময় পরমাণু বিপর্যয় ঘটতে পারে বলে উইকিলিকসে প্রকাশিত ১৮ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনে দাবি করেছেন ম্যাকনেইলি। তিনি বলেছেন, এতে দেশটির জনগণ বেঘোরে মারা যাবে এবং ধ্বংস হয়ে যাবে ব্রিটেন।
পরমাণু শক্তিচালিত এবং পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ট্রাইডেন শ্রেণীর ডুবোজাহাজ এইচএমএস ভিক্টোরিয়াসে জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত কাজ করেছেন ম্যাকনেইলি। এরপর চাকরিস্থল থেকে বিনা ছুটিতে অনুপস্থিত থাকতে শুরু করেন তিনি এবং প্রতিবেদন প্রকাশের কাজে উইকিলিকসকে সহযোগিতা করেন। চাকরিরত অবস্থায় ব্রিটেন তিন দফা পরীক্ষামূলক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ ব্যর্থ হয়েছে দাবি করে প্রতিবেদনে তিনি বলেন, এর অর্থ দাঁড়াচ্ছে এ সব ডুবোজাহাজ থেকে সফলভাবে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া অসম্ভব। ম্যাকনেইলি আরো বলেছেন, নৈশ ক্লাবগুলোতে ঢুকতে যে নিরাপত্তা ব্যবস্থার মুখোমুখি হতে হয় ব্রিটিশ নৌবাহিনীর সংরক্ষিত পরমাণু কর্মসূচির এলাকায় ঢুকতে তার চেয়ে কম নিরাপত্তা ব্যবস্থার মোকাবেলা করতে হয়। এ ছাড়া, এ সব এলাকায় নিজস্ব যোগাযোগ যন্ত্রসহ যেকোনো কিছু নিয়ে ঢোকা সম্ভব বলেও দাবি করেছেন তিনি। ফলে স্পর্শকাতর তথ্য হাতিয়ে নেয়াও সম্ভব।
এ ছাড়া, ব্রিটিশ ডুবোজাহাজের টর্পেডো রাখার জায়গায় পানি ঢুকে পড়ে, টয়লেট ঠিকভাবে কাজ করে না। এসব ডুবোজাহাজের ক্ষেপণাস্ত্র রাখার স্থানকে ব্যায়ামাগার হিসেবে ব্যবহার করা হয়, যোগাযোগ যন্ত্র সঠিক ভাবে কাজ না করায় কথা-বার্তা বোঝা বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়ায় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।
এতে আরো বলা হয়েছে, প্রতি বছর ব্রিটিশ নৌবাহিনীর সদস্যদের শত শত পরিচয় পত্র খোয়া যায়। এগুলোর ভিত্তিতে জাল পরিচয় পত্র তৈরি করা সম্ভব। জাল পরিচয় পত্র দিয়ে বা খোয়া যাওয়া পরিচয় পত্র ব্যবহার করে সংরক্ষিত পরমাণু এলাকায় অনায়াসে ঢোকা সম্ভব বলেও ম্যাকনেইলের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]