তবুওতো তিনি আছেন বটবৃক্ষ হয়ে!

আমাদের নতুন সময় : 30/06/2015

Pic of Rajjakনিজস্ব প্রতিবেদক : শুধু সাংবাদিকদের নয় সারা বাংলাদেশের মানুষের কাছে নায়করাজ রাজ্জাকের শারীরিক অবস্থা নিয়ে কৌতুহল থাকাটাই স্বাভাবিক। কারণ তিনি আমাদের চলচ্চিত্রের নায়করাজ। নায়কদের সেরা তিনি। এদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে যার নাম আজীবন লেখা থাকবে তিনি নায়করাজ। সেই সবার প্রিয় মানুষটি যখন হাসপাতালে ভর্তি হন তখন স্বাভাবিকভাবেই তার খোঁজ খবর নিতে সাংবাদিকরা অস্থির হয়ে পড়েন। সবাইকে খবর দিতেই শুধু নয় শুভাকাঙ্খী হিসেবেই বেশিরভাগ সাংবাদিক খোঁজ নেন। নায়ক রাজের প্রতি প্রচন্ড আবেগ আর ভালোবাসা থাকাটাই স্বাভাবিক এদেশের প্রত্যেক সিনেমাপ্রেমী দর্শকের, মানুষের। আমরা যারা বিনোদন সাংবাদিক হিসেবে কাজ করছি বিশেষত যাদের সাংবাদিকতা একযুগ পেরিয়ে গেছে কিংবা তারও বেশি তাদের কাছে নায়ক রাজ মানেই হচ্ছেন একজন অভিভাবক। বিপদে একজন পরামর্শদাতা। আবার চলচ্চিত্র পরিবারের কাছে নায়ক রাজ মানে একজন বটবৃক্ষ। আমাদের অনেকেরই বাবা নেই। যার বাবা নেই শুধু তিনিই বুঝেন বাবা না খাকার কষ্ট। নায়ক রাজ রাজ্জাক আমাদের চলচ্চিত্র পরিবারের ‘বাবা’রই মতোন। হয়তো তিনি এখন কাজ করছেন না, নিয়মিত এফডিসিতেও যাচ্ছেন না। কিন্তু সবার মাঝে কেমন যেন একধরনের স্বস্তি কাজ করে সবসময়ই যে, আমাদের অভিভাবক আছেন, আমাদের বটবৃক্ষ আছেন, আমাদের নায়ক রাজ আছেন। তিনি আছেন তাতেই যেন শান্তি আমাদের। বাবা যেখানেই থাক ভালো থাকুক এমনটা যেমন কামনা করেন সবাই। ঠিক তেমনি নায়ক রাজ যেখানেই থাকুন না কেন, যেভাবেই থাকুন না কেন তিনি যেন ভালো থাকেন, সুস্থ থাকেন। তিনি আমাদের অভিভাবক হয়ে আছেন, যেন তাতেই আমরা শান্তি পাই, নিজের মাঝে ভালোলাগা খুঁজে পাই। শেষতক শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করছি আমাদের প্রিয় প্রয়াত সাংবাদিক আহমাদ জামান চৌধুরীকে। যার কলমেই সৃষ্টি হয়েছিলো ‘নায়করাজ’ উপাধি। সত্যিই তিনি ‘রাজ্জাক’ আপনি নায়ক রাজ। আল্লাহ আপনাকে সুস্থ রাখুন, ভালো রাখুন, পরিবারের সবার মাঝে, চলচ্চিত্রের আঙ্গিনায় আপনি সুস্থ হয়ে ফিরে আসুন। আমরা আপনার ফেরার প্রত্যশায়।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]