নিজেদের ভুলে ভরাডুবি মাশরাফিদের

আমাদের নতুন সময় : 06/07/2015

bnনিজস্ব প্রতিবেদক : দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-২০ ম্যাচ জিতবে বাংলাদেশÑ এমন প্রত্যাশার কথা হয়তো কেউই প্রকাশ করবে না। তবে সবাই বলবে মাশরাফিরা ভালো খেলে যেন প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে পারে। সে ক্ষমতা মাশরাফি বাহিনীর আছে। কিন্তু সবই যেন গরলভেল।

প্রাপ্তি আর প্রত্যাশার মধ্যে যোজন যোজন ফারাক, সেটা আরও একবার প্রমাণিত হলো এই ম্যাচ দিয়ে। মাঠে নামার আগে টাইগার দলপতি মাশরাফি বলেছিলেন, আমরা ভালো খেলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলবো। জয়পরাজয়ের ব্যবধানটাও হবে ন্যূনতম।
টস হেরে ফিল্ডিং পেয়ে ভালোই পারফর্ম করেছে বোলাররা। দক্ষিণ আফ্রিকার মতো একটি শক্তিধর দলকে ১৪৮ রানের মধ্যে আটকেও রেখেছিল মাশরাফিরা। কিন্তু প্রোটিয়াসদের বোলিং তোপে টাইগার ব্যাটসম্যানরা খেই হারিয়ে ফেলে। যে কারণে বিশাল ব্যবধানে হার মানতে হয় টাইগারদের। এক কথায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হোম সিরিজে শুরুটা ভালো হলো না স্বাগতিকদের। টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫২ রানে স্বাগতিকদের হারিয়েছে সফরকারীরা। এ জয়ে ২ ম্যাচ টি-২০ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ডু প্লেসিসের দল।
মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জয়ের লক্ষ্যে তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। ব্যক্তিগত ৫ রানে অ্যাবোটের বলে উইকেটরক্ষক ডি কোকের তালুবন্দি হন ওপেনার তামিম। সতীর্থের পদাঙ্ক অনুসরণ করলেন সৌম্য সরকারও। তিনি ক্যাচ আউট হন ব্যক্তিগত ৭ রান করে। রাবাডার বলে ডুমিনির হাতে ক্যাচ দিয়েছেন এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান।
এদিকে টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম বিশ্বকাপের পর থেকেই রান খরায় রয়েছেন। সর্বশেষ ভারতের বিপক্ষে হোম সিরিজেও হাসেনি তার ব্যাট। এই ম্যাচেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। স্বরূপে ফিরতে পারলেন না তিনি। ডুমিনির বলে ব্যক্তিগত ১৭ রানে আউট হয়েছেন ‘রান মেশিন’খ্যাত এই টাইগার ক্রিকেটার।
ঝড়ো ইনিংস খেলার জন্য সাব্বির রহমানের তুলনা নেই, কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পারেননি তিনিও। নিজের নামের পাশে ৪ রান যোগ করেই ডুমিনির দ্বিতীয় শিকার হন তিনি। তার আগে ড্রেসিং রুমের পথ ধরেছেন নাসির হোসেন (১)। ফাঙ্গিসোর বলে ক্যাচ আউট হয়েছেন এই অলরাউন্ডার।
নিয়মিত বিরতিতে বাংলাদেশ উইকেট হারালেও প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন ক্রিকেটবিশ্বের শীর্ষ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তবে তাকে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার সুযোগ দেননি বোলার ডেভিড ওয়েসে। ধীরগতিতে খেলতে থাকা সাকিবকে ক্যাচ আউট করেছেন ওয়েসে। আউট হওয়ার আগে ২৬ রান করেছেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার। তার বিদায়ের পরই মূলত ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ। শেষ অবধি গুটিয়ে যাওয়ার আগে ৯৬ রান করতে সক্ষম হয় স্বাগতিকরা।
এর আগে টসে জিতে ব্যাটিং করে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪৮ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। সর্বোচ্চ অপরাজিত ৭৯ রান করেন অধিনায়ক ডু প্লেসিস। বাংলাদেশের হয়ে ২টি উইকেট নিয়েছেন আরাফাত সানি। এছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান ও নাসির হোসেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর : দক্ষিণ আফ্রিকা : ১৪৮/৪, ওভার ২০ (প্লেসিস ৭৯*, রোসোউ ৩১*, ডুমিনি ১৮; আরাফাত ২/১৯)
বাংলাদেশ : ৯৬/১০, ওভার ১৮.৫ (সাকিব ২৬, লিটন ২২, মুশফিক ১৭; ডুমিনি ২/১১, ওয়েসে ২/১২)
ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ৫২ রানে জয়ী। সম্পাদনা : আলাউদ্দিন

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]