• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » রোহিঙ্গা ইস্যুতে কানাডার সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী : পররাষ্ট্রমন্ত্রী


রোহিঙ্গা ইস্যুতে কানাডার সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 06/06/2018

তরিকুল ইসলাম: পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বলেছেন, কানাডার কুইবেক শহরে আসন্ন জি৭ শীর্ষ সম্মেলনের আউটরিচ প্রোগ্রামে যোগ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর সেখানেই দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে রোহিঙ্গা ইস্যুতে কানাডার সমর্থন চাইবেন প্রধানমন্ত্রী। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের প্রাথমিক কাতারে উন্নীত হওয়ায় পরিবর্তিত বাণিজ্য সুবিধা নিয়ে আলোচনা করবেন।প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে নিজ দপ্তরে ডাকা সংবাদ সম্মেনে এসব কথা বলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী। তিনি বলেন, ৮ জুন কানাডার কুইবেকে বিশ্বের বড় অর্থনীতির দেশগুলোর জোট জি৭-এর শীর্ষ সম্মেলন শুরু হচ্ছে। দুই দিনব্যাপী ওই সম্মেলনের সমাপনী দিনে আউটরিচ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হবে। এবারের আউটরিচে জোটের সদস্য নয়, কিন্তু বিশেষভাবে আমন্ত্রিত দেশের সরকারপ্রধান ও বিভিন্ন সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ ১৬ জন অতিথি যোগ দেবেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট, জ্যামাইকার প্রেসিডেন্ট, কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট, নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী, সেনেগালের প্রেসিডেন্ট, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট, ভিয়েতনামের প্রধানমন্ত্রী, জাতিসংঘের মহাসচিব, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বিশ্বব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এতে অংশ নেবেন। সর্বশেষ ২০১৬ সালে জাপানে অনুষ্ঠিত জি৭-এর আউটরিচ প্রোগ্রামেও যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, জাপান ও ইতালি জি৭-এর সদস্য।
মাহমুদ আলী বলেন, জি৭ শীর্ষ সম্মেলনের আউটরিচ প্রোগ্রামে যোগ দিতে আগামীকাল সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঢাকা ত্যাগের কথা রয়েছে। সম্মেলন শেষে আগামী ১১ জুন দেশে ফেরার কথা প্রধানমন্ত্রীর। এবারের জি৭ সম্মেলনের আউট রিচে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা হবে। এটি হবে বাংলাদেশ ও কানাডার যৌথ উদ্যোগে। ওই আয়োজনে কানাডার বিশেষ আমন্ত্রণে যোগ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী সেখানে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের ১১ লাখ বাসিন্দাকে আশ্রয় দেয়ার অভিজ্ঞতা বিশ্বনেতাদের কাছে তুলে ধরবেন।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা বিষয়ে আমাদের অবস্থান পরিষ্কার। আমরা তাদের নিরাপদ, মর্যাদাপূর্ণ ও টেকসই প্রত্যাবাসন চাই। বাংলাদেশে একসঙ্গে এত বিশাল সংখ্যক শরণার্থীর অবস্থান দেশের অর্থনৈতিক, নিরাপত্তা ও পরিবেশগত ঝুঁকি ডেকে আনছে। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশ এ ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হলো। আমরা চাই এর স্থায়ী সমাধাম। সম্পাদনা: সিদ্ধার্থ দে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]