সিএনজির প্রত্যেকটা মুহূর্ত ছিল আমার কাছে জাহান্নাম

আমাদের নতুন সময় : 08/07/2018

আশরাফুল আলম ভূইয়া

সিএনজির প্রত্যেকটা মুহূর্ত ছিল আমার কাছে জাহান্নাম। থানা ছিল সেকেন্ড জাহান্নাম। এদের জন্ম নিয়ে আমি সন্ধিহান। কারণ, কোন ভদ্র মায়ের সন্তান এসব করতে পারে না। আজ কোথায় নারীবাদী, সুশীল সমাজ, রাম আর বামেরা, কোথায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনাদারীরা, কোথায় তাদের মিডিয়া? সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন মরিয়ম।
কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাছানকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে ছাত্রলীগের হামলা থেকে বাঁচাতে গিয়ে নিজেই নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী মরিয়ম। তিনি বলেন, যখন আমাকে তুলে সিএনজির ভেতরে করে নিয়ে যাওয়া হয়, তখন সিএনজির প্রত্যেকটা মুহূর্ত ছিল আমার কাছে জাহান্নাম। পরে আমি ভেবেছি, হয়তো থানায় গেলে সেভ থাকবো। কিন্তু না, থানা ছিল আমার জন্য সেকেন্ড জাহান্নাম। গত বৃহস্পতিবার (৫ জুলাই) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে মরিয়ম এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে একটি কর্মসূচিতে অংশ নিতে আমি সেদিন (রবিবার, ২ জুলাই) শহীদ মিনারে গিয়েছিলাম।
এর আগে আমি ব্যক্তিগতভাবে ফারুক ভাইকে চিনতাম না। সেখানে এসে দেখি কিছু লোক ফারুক ভাইকে বেধড়ক মারছে। তখন এ দৃশ্য দেখে আমি ফারুক ভাইকে বাঁচাতে এগিয়ে যাই। তারা এমনভাবে কুকুরের মতো মারছে, তা দেখে শুধু আমি না, যে কেউ এগিয়ে যাবে। তারপর আমি ফারুক ভাইকে একটি রিকশায় তুলতে চাইলে ছাত্রলীগের নেতারা তাকে মেরে একটি মোটরসাইকেলে করে তুলে নিয়ে যায়। তারপর তারা আমাকে ধরে নিয়ে আমার শরীরের কোন কোন জায়গায় হাত দিছে তা আপনারা শুনতে চান? আপনারা আমাকে সিমপ্যাথি দেখাতে আসবেন না। সিমপ্যাথি নেওয়ার মেয়ে আমি না। আমি ইনটেনশনালি এই আন্দোলনে এসেছি। অ্যাজ এ হিউম্যান, আমার কিছু রাইটস আছে। যদি আমার কোনও অন্যায় হয়ে থাকে, তাহলে পুলিশ আমাকে ধরে নিয়ে যেতে পারতো। আমাকে কোর্টে চালান করে দিতে পারতো। কিন্তু বাইরের ছেলেরা কেন আমাকে তুলে নিয়ে যাবে? কেন তারা আমার গায়ে টাচ করবে? এটা শুনতে ইচ্ছা করছে আপনাদের? তারা আমাকে একটি সিএনজিতে করে থানায় নিয়ে যায়। তারা আমার সঙ্গে খুব বাজে ব্যবহার করেছে।
পরিচিতি: বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী/ মতামত গ্রহণ: নৌশিন আহম্মেদ মনিরা/ সম্পাদনা: মোহাম্মদ আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]