বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসার মান আরো উন্নত করা উচিত

আমাদের নতুন সময় : 10/07/2018

মুহাম্মদ আশ্রাফুল আলম ভূঁইয়া

চট্টগ্রামে প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা বন্ধের কারণে দূর দুরান্ত থেকে আগত রোগিরা চরম দুর্ভোগে পড়েছে। ডাক্তারদের দ্রুত এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত হয়নি। চিকিৎসার অবেহেলায় শিশু মৃত্যুসহ নানা অভিযোগে চট্টগ্রাম নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালসহ আরো ২টি হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করেছে র‌্যাব। তার প্রতিবাদে বেসরকারি হাসপাতালে অনির্দিষ্টকালের জন্য চিকিৎসা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান সমিতি। তাদের এই ঘোষণায় সংহতি প্রকাশ করেছে সরকার সমর্থিত বিএমএ চট্টগ্রাম শাখা। তাদের ভুল চিকিৎসার জন্য তারা ক্ষমা চাওয়া উচিত এবং বেসরকারী হাসপাতালগুলোর চিকিৎসার মান আরো উন্নত করণের দিকে খেয়াল বাড়ানো অত্যন্ত জরুরি। এদিকে, বন্ধ ঘোষণার পর রবিবার বিকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নগরীর প্রায় সব হাসপাতাল-ল্যাবে অভিন্ন ব্যানার টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে। এসব সেবা কেন্দ্রের প্রবেশ পথও বন্ধ রাখা হয়েছে। হাসপাতাল থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে সেবা নিতে আসা রোগীদের। আগে থেকে চিকিৎসকদের সিরিয়াল দেওয়া থাকা রোগীরা পড়েছেন চরম দুর্ভোগে। পক্ষান্তরে, বেসরকারি সেবাকেন্দ্রে চিকিৎসা বন্ধ থাকায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে রোগীর চাপ বাড়ছে। এমনিতেই চমেক হাসপাতালে ১৩ শয্যার বিপরীতে প্রতিদিন প্রায় ২৫০০ রোগী ভর্তি থাকে। চট্টগ্রাম নগর ও জেলায় ৫০৬ টি বেসরকারি হাসপাতাল ও রোগ নিরূপনী কেন্দ্র আছে। আইনী পদক্ষেপের কারণে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করার কোনো অধিকারও কারো নেই। তবে দেশের নাগরিক হিসেবে সরকারের সিদ্ধান্ত আমাদের মানতেই হবে। অথচ চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে আইনী এ প্রতিষ্ঠানকে। অথচ আমরা কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নই।

পরিচিতি: সভাপতি, ন্যাশনাল এনভায়রনমেন্ট হিউমান রাইটস ফাউন্ডেশন,ডবলমুরিং থানা/ মতামত গ্রহণ : তাওসিফ মাইমুন/ সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]