না ফেরার দেশে মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ফাদার জ্যোতি গমেজ

আমাদের নতুন সময় : 29/07/2018

খ্রিস্টীয় দর্পন ডেস্ক

ঢাকার মহা ধর্মপ্রদেশের জ্যেষ্ঠ পুরোহিত এবং বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ফাদার জ্যোতি গমেজ ১৬ জুলাই, ভোর চারটায় ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে অসুস্থাবস্থায় মারা গেছেন। তিনি দশদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি হন এবং ভর্তি হওয়ার দুইদিন পর থেকেই অচেতন ছিলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।
ফাদার জ্যোতি ছিলেন খ্রিস্টীয় যোগাযোগ কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। তিনি দীর্ঘ ১৭ বছর ক্যাথলিক বিশপদের যোগাযোগ দপ্তর হিসেবে ব্যবহুত প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্বে ছিলেন। বর্তমান খ্রিস্টীয় যোগাযোগ কেন্দ্রের পরিচালক ফাদার আগষ্টিন বুলবুল রিবেরু তাঁর বিষয়ে বলেন, ‘ফাদার জ্যোতি বাংলাদেশে খ্রিস্টীয় মিডিয়া জগতের প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর হাত দিয়ে বাণীদীপ্তি, আরভিএ, প্রতিবেশী প্রকাশনী প্রতিষ্ঠা ও প্রসার হয়েছে। তিনি এক সময় খ্রিস্টান সংস্কৃতিক গোষ্ঠীকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনি তেজগাঁও ও হাসনাবাদ ধর্মপল্লীতে খুব ভাবে পালকীয় কাজ করেছেন। খ্রিস্ট ম-লিতে তাঁর ভূমিকা অনেক।
সাবেক অতিরিক্ত সচিব এবং গীতিকার উইলিয়াম অতুল কুলুন্তুনু বলেন, ‘আমি এক সময় ওনার (ফাদার জ্যোতির) সহকর্মী ছিলাম। আমি দেখেছি উনি খুব ভালে সংগঠক ছিলেন। তিনি যদি দেখতেন কেউ ভাল গল্প বা কবিতা লেখে তবে তিনি তার কাছ থেকে গল্প বা কবিতা চাইতেন। লেখার জন্য উৎসাহ দিতেন। এভাবে তিনি নতুন নতুন লেখক-শিল্পী তৈরি করেছেন’।
তিনি বলেন, আমি গীতাবলীতে স্থান পাওয়া বেশ কয়েকটি গান লিখেছি। ফাদার জ্যোতির উৎসাহের কারণেই আমি সেগুলো লিখতে পেরেছি। গাজীপুরের তুমিলিয়া গীর্জার কবরস্থানে তাঁর মরদেহ কবরস্থ করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, খ্রিস্টান সমাজের বেশ কয়েকজন লেখক-গীতিকার ও শিল্পী তাঁর উৎসাহ অনুপ্রেরণায় লেখক-গীতিকার ও শিল্পী হয়েছেন। তারা হলেন নিধন ডি’রোজারিও, হেবল ডি’ক্রুজ, ফ্রান্সিস গমেজ, মতেন্দ্র মানকিন, আলো ডি’রোজারিও, উইলিয়াম অতুল কুলুন্তুনু, যোসেফ কমল রড্রিক্স, জেন কুম কুম, হেলেন রোজারিও, ফিদেলিউস মার্ডি, খোকন কোড়ায়া প্রমুখ। সূত্র: বিডি খ্রিস্টান নিউজ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]