পূর্ববর্তী
পরবর্তী


সৎ মা

আমাদের নতুন সময় : 04/10/2018

Mother silhouette with baby

অপরাজিতা মুন্নী

পৃথিবীতে ‘মা’ হ‘েছ একটি মধুর নাম। ‘মা’ এই শব্দটা এতো মিষ্টি লাগে যে, বলতেই চোখে পানি চলে আসে। পৃথিবীর তাবৎ অধিকার ওই একটি শব্দের মধ্যে, নির্ভার ও নিশ্চয়তা। এখন এই ‘মা‘ অক্ষরটি বা এক অক্ষরের শব্দটির সামনে যখন ‘সৎ‘ শব্দটি বসে পুরো বিষয়টি বদলে যায়। একটি নিষ্ঠুর ভয়াবহ দৃশ্যের অবতারণা হয়।
সৎ শব্দটির মাহাত্ম্য কতোই না ব্যাপক। এক ‘মা’ শব্দের অধিকারিণী যদি এতো বিরল মহৎপ্রাণ হয়ে থাকেন তাহলে যিনি সৎ কথাটি সাথে নিয়ে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি তো আরো বিশাল হৃদয়ের হতে পারেন। দরকার নেই বিশালত্বের, একটু মানবিক হলেই তো পৃথিবীতে কতো গুলো বাচ্চা যারা ‘মা’ হারা এই বাচ্চাগুলো জীবনে বহু ধাপই তো এগিয়ে যেতে পারে। মননে, মেধায় কিংবা সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে পারে। ভয়াবহ ও বাজে অভিজ্ঞতা বুকে নিয়ে নিয়ত যুদ্ধ করতে হয় না!
কেন এতো কার্পণ্য! একটু মমত্ব আর ভালো ব্যবহারের এতো দুর্ভিক্ষ! যে শিশুর বাবাটি আপনার হৃদয়ের বা অন্তরাত্মা হতে পারে তাহলে তার আত্মা বা সুখ যে তারই আত্মজ এই সিম্পল কথাটি কেনো সেই কথিত মায়েরা বোঝেন না? কী শিক্ষিত কী অশিক্ষিত, এই একটি জায়গায় কেনো এরা এতো অসভ্যতার সর্বনিম্ন পর্যায়ে চলে আসেন, আমার মাথায় আসে না। একটি বাচ্চা সে যারই হোক, সে তো শিশু। আরে ‘মা’ হতে হলে তা কি শুধু নিজে পয়দা করতে হয়? জন্ম না দিয়ে মা হওয়া যায় না? নিজের পেট থেকে না হলে মাতৃত্ব বা পিতৃত্ব আসবে না কেনো? তাহলে তো ওই সম্পর্কটাই যে অতি পলকা হয়ে যায়, এই বোধ কেনো মানুষের আসে না?
আমি সত্যিই জানি না। তাহলে মায়ের আগে ওই সৎ কথাটি বসিয়ে ‘সৎ মা’ কথাটি ঐসব বিকারগ্রস্ত অমানুষদের নামের বিশেষণ হওয়া উচিত নয়। সূত্র : ফেসবুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]