এ্যাম্বুলেন্স, প্রয়োজনীয় জনবল ছাড়াই চলছে কুড়িগ্রামের মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র

আমাদের নতুন সময় : 09/11/2018

শাহনাজ পারভীন, কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রটিতে রয়েছে ৩০ বছরের একটি পুরোনো এ্যাম্বুলেন্স যা চলাচলে বিরম্বনা ছাড়া কিছু নয়। এছাড়াও ১ বছর যাবত নেই অজ্ঞানের ডাক্তার, নেই প্রয়োজনীয় জনবল। এ কেন্দ্রটি মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা, পরিবার পরিকল্পনার যাবতীয় কর্মকা-ে অত্যন্ত গুরুত্বপুণ ভুমিকা পালন করে আসলেও বর্তমানে এসকল সংকটের কারনে নিজেই অসুস্থ্যতায় ভুগছে।  জানা গেছে, কুড়িগ্রাম জেলা শহরে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে ৩০ বছর আগে ডিফেন্ডার নামের একটি এ্যাম্বুলেন্স দেয়া হয়। সারা বাংলাদেশে এই গাড়ি ব্যন্ড করা হলেও শুধুমাত্র কুড়িগ্রামে জোড়া-তালি দিয়ে চালানো হচ্ছে এই এ্যাম্বুলেন্সটি।

অজ্ঞানের ডাক্তার ও প্রয়োজনীয় জনবল না থাকায় প্রতিমাসে ২-৩টির বেশি সিজার করা সম্ভব হচ্ছে না। এতে করে অনেক দরিদ্র পরিবার এ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।  এ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার মো: বাচ্চু মিয়া জানান, এই গাড়ী নিয়ে রোগী পরিবহনে প্রতিমহুর্তে নানা বিরম্বনায় পড়া ছাড়াও রোগীর লোকজনের দ্বারা লাঞ্চিত হতে হয়। যখন তখন পথে-ঘাটে গাড়ীটি নস্ট হলেও একমাত্র ঢাকার বাংলাবাজার ধোলাইখালে আমানত মটরস-এ অর্ডার দিয়ে উচ্চ মুল্যে যন্ত্রাংশ ক্রয় করা ছাড়া কোন উপায় থাকে না। মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের অফিসার ইনচার্জ ডা: মারুফা আক্তার জানান, জরুরী ভিত্তিতে এখানে একটি নতুন এ্যাম্বুলেন্স প্রয়োজন। এছাড়াও একজন অজ্ঞানের ডাক্তার, ৩ সিপটে কাজ করার জন্য ৫-৬জন হেলপ্ ভিজিটর প্রয়োজন। সংকটের কারণে স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রোগীরা।

পরিবার পরিকল্পনার ডিডি ডা: নজরুল ইসলাম জানান, একটি নতুন এম্বুলেন্স এর জন্য এমপির ডিওলেটার সহ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে একাধিকবার চিঠি দেয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও কোন খবর পাওয়া যায়নি। এছাড়াও এখানে অজ্ঞানের ডাক্তার ও প্রয়োজনীয় জনবল জরুরী হয়ে পড়েছে।

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com