নকল পায়ে এভারেস্টের শীর্ষে অরুণিমা

আমাদের নতুন সময় : 09/11/2018

আসনাত চৌধুরী রিভা : উত্তরপ্রদেশের অম্বেদকর শহরের মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান অরুণিমা সিংহ। জাতীয় পর্যায়ের ভলিবল খেলোয়ার ছিলেন তিনি। স্বপ্ন ছিল এভারেস্ট জয়ের। ঠিক সেই সময়েই জীবনে নেমে এলো এক কালো অন্ধকারের ছায়া।  ট্রেনের কামরায় ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন অরুণিমা। সেই সময় ছিনতাকারীরা তাকে ট্রেন তেকে ফেলে দেয়। উল্টো দিক থেকে আসা ট্রেনের চাকায় তার বাম পা কাঁটা পড়ে। সারা রাত যন্ত্রণায় কাতরান তিনি। তবুও লড়াইয়ের ময়দান থেকে পিছ পা হননি তিনি। অস্ত্রোপচারের পরে নকল পা লাগানোর পরেই এভারেস্ট জয়ের সঙ্কল্প করেন অরুলিমা। তার লড়াই টা মোটেও সহজ ছিল না। সবাই ভেবেছিল এত বড় দুর্ঘটনার পর হয়তো অরুণিমার মাথা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। অরুণিমা জানায় তাকে কেউ পাগল বললে সে রাগে কষ্টে চিৎকার করে কাঁদতো।

পাগল বলে যখন সারা দুনিয়া তার ডদিক থেকে মুখ ফিরিয়ে সেনয় ঠিক সেই সময তিনিভারতের প্রথম নারী এভারেস্টজয়ী বাচেন্দ্রী পালের কাচে যায় এবং তার এভারেস্ট জয়ের সপ্নের কথা জানায়। বাচেন্দ্র পাল তাকে বলেন, ‘ তুমি যে এই অবস্থাতেও এভারেস্ট জয়ের অভিযানের কথা ভেবেছ এতেই তোমার শৃঙ্খজয় হয়ে গিয়েছিল।’ উত্তরকাশীতে পর্বতারোহণের প্রশিক্ষণ নেওয়ার সময় পায়ে একটু চাপ পড়লেই পা ফেটে রক্ত পড়তো।

বহু লড়াই এবং ঝড়-ঝাপটার পর ২০১৩ সালের ২১ মে, সকাল ১০:৫৫ মিনিটে এভারেস্ট জয় লাভ করেন অরুণিমা। ঈস্খস্থেটিক পা নিয়ে তিনি বিশে^র প্রথম এভারেস্ট বিজয়ী  নারী। সেই সাফল্যের জন্য অরুণিমাকে সম্মান জানাল ইউনিভার্সিটি অব স্ট্রাথক্লিল্ড। গত মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে তাঁকে সাম্মানিক ডক্টরেট দিল ব্রিটেনের এই ঐতিহ্যশালী বিশ্ববিদ্যালয়। আনন্দবাজার




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com