• প্রচ্ছদ » » কানাডার শ্রেণিকক্ষের ৩০ বৈশিষ্ট্য


কানাডার শ্রেণিকক্ষের ৩০ বৈশিষ্ট্য

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2018

আখতার হোসেন

আমি বাংলাদেশেও শিক্ষকতা করেছি, এখন করছি কানাডায়। কানাডার শ্রেণিকক্ষের বৈশিষ্ট্যগুলো উল্লেখ করছি : এক. আমি শ্রেণিকক্ষে পড়াই কিন্তু প্রশ্নপত্রকে প্রণয়ন করেন তা আমি জানি না। দুই. ফেল করলে দায় আমার। সব সময় ওদের চেয়ে আমি বেশি ভয়ে থাকি। তিন. সিলেবাসের শতভাগ পড়ানো হয়েছে সে মর্মে ওরা প্রত্যয়ন করে। চার. কতো ঘণ্টা পড়ানো হয়েছে সে মর্মে ওরা প্রত্যয়ন করে। পাঁচ. পড়ার পরিবেশ শিক্ষার্থীর পক্ষে ছিলো সে মর্মে ওরা প্রত্যয়ন করে। ছয়. প্রতিটি সমস্যার যথাযথ সমাধান করা হয়েছে সে মর্মে ওরা প্রত্যয়ন করে। সাত. পঠিত বিষয়ে শিক্ষকের জ্ঞান, কৌশল ও মূল্যবোধের প্রত্যয়ন ওরা করে। আট. পাঠ শেষে ওরা আমার শারীরিক, মানসিক আর দৃষ্টিভঙ্গির মূল্যায়ন করে। নয়. ওরা আমাকে স্যার বলে খুব কম, নাম ধরেই বেশি ডাকে। দশ. যা-ই আমাকে দিক তা ডান হাতে বা বাম হাতে দেয়। এগারো. হাফপ্যান্ট আর সেন্ডো গেঞ্জি পরেও মেয়েরা ক্লাস করতে পারে। বারো. নকল করার কোনো সুযোগ নেই বা ব্যবস্থাও নেই। তেরো. ক্লাসে কফি পান করলে বা জরুরি লাঞ্চ করলে কোনো সমস্যা নেই। চৌদ্দ. ক্লাসে আসতে বা চলে যেতে কোনো অনুমতি লাগে না। পনের. আমি ক্লাসে গেলে কেউ উঠে দাঁড়ায় না। ষোলো. হাই/বাই বেশি বলে। থ্যাঙ্ক ইউ এবং ইউ আর অয়েলকাম ভালো চলে। সতের. দুপুরে বিদায় নিলেও গুডনাইট বলে। আঠারো. বাস্তবের চাকরির ব্যবস্থায় সব ধরনের সাহায্য করতে হয়। ঊনিশ. প্রাইভেট পড়ানোর কোনো সুযোগ নেই। কেউ পড়েও না। বিশ. অনুপস্থিত থাকলে সে ক্লাসের জন্য শিক্ষার্থীকে অতিরিক্ত ফি দিতে হয়। একুশ. কারো মানসিক বা আর্থিক সমস্যা থাকলে সেটা শুনে সমাধান দিতে হয়। বাইশ. ছেলেমেয়ে সব একত্রে বা যার যেখানে মন চায় সেখানে বসে। তেইশ. পায়ে হাত দিয়ে সালামের নিয়ম নেই। চব্বিশ. ছেলেদের মতো মেয়েরাও আমার সাথে হ্যান্ডশেক করে। পঁচিশ. ক্লাস নিতে সমস্যা হলে ২৪ ঘণ্টা আগেই সবাইকে জানাতে হয়। ছাব্বিশ. সব শিক্ষার্থী একত্র হয়ে ক্লাসের সময় পরিবর্তন করে নিতে পারে। সাতাশ. ক্লাসের পড়া ক্লাসেই শেষ। বাসায় গিয়ে প্রাকটিস করতে পারে। আটাশ. ক্লাস চলার সময় সবার ফোন বন্ধ থাকে। ঊনত্রিশ. ক্লাস দেরিতে শুরু হয় না। দেরিতে শুরু হলে দেরিতে শেষ হয়। ত্রিশ. বাবা মায়ের চাইতে আমরা ওদের কাছে অনেক বেশি প্রিয়। লেখক : কানাডায় বসবাসকারী একজন বাঙালি শিক্ষক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]