• প্রচ্ছদ » » বিএনপি কি ফোর্বসের বিরুদ্ধে নালিশ করবে!


বিএনপি কি ফোর্বসের বিরুদ্ধে নালিশ করবে!

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2018

বিভুরঞ্জন সরকার

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রভাবশালী ব্যবসায়িক সাময়িকী ‘ফোর্বস’ ৪ ডিসেম্বর বিশ্বের ক্ষমতাধর ১০০ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে। তাতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম ২৬তম অবস্থানে আছে। গত বছর তিনি ৩০তম অবস্থানে ছিলেন। অর্থাৎ তিনি চার ধাপ এগিয়ে এসেছেন। এটা তার সাফল্য। রাজনীতিবিদদের তালিকায় ২০ জন রাজনীতিবিদের নাম আছে, তার মধ্যে শেখ হাসিনার অবস্থান ষষ্ঠ।
প্রশ্ন হলো, আমাদের সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে ফোর্বস কি ঠিক কাজ করেছে? এটা কি শেখ হাসিনা তথা আওয়ামী লীগের পক্ষে যাবে, না বিপক্ষে? যদি বিপক্ষে যায়, তাহলে কোনো কথা নেই। পক্ষে গেলে কথা আছে। নির্বাচনের আগে ফোর্বসের পক্ষপাতিত্বের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া উচিত বিএনপির। রুহুল কবির রিজভীর অন্তত এই সুযোগ হাতছাড়া করা উচিত হবে না।
শেখ হাসিনাকে ‘ক্ষমতাধর’ বলা কি ইতিবাচক, না নেতিবাচক? যদি নেতিবাচক হয় তাহলে কোনো কথা নেই, কিন্তু ইতিবাচক হলে কথা আছে। ইতিবাচক হলে আওয়ামী লীগ এটা নির্বাচনী প্রচারে ব্যবহার করবে। সেটা কি নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন হবে? সুজন কি বলে?
ফোর্বস কি আওয়ামী লীগ এবং উভয়ের জন্যই প্রচার উপকরণ সরবরাহ করেছে? কেউ কেউ বিষয়টিকে সেভাবেও দেখতে পারেন।
আওয়ামী লীগের ব্যবহারযোগ্য ভাষ্য : শেখ হাসিনা ২০১৭ সালে মিয়ানমার থেকে প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় এবং তাদের জন্য ২ হাজার একর জমি বরাদ্দ দেন। তিনি বর্তমানে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবসন নিশ্চিত করতে কাজ করছেন। বিএনপির পক্ষের ভাষ্য : নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্রমশ কর্তৃত্ববাদী হয়ে ওঠা তার (শেখ হাসিনা) সরকারের বিরুদ্ধে ভোটারদের দাবিয়ে রাখার এবং গণতন্ত্রকে খর্ব করার অভিযোগ উঠেছে। দেখা যাক, ফোর্বস তালিকা নিয়ে কে কোন পথে হাঁটে। লেখক : গ্রুপ যুগ্ম সম্পাদক, আমাদের নতুন সময়




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]