বীর সাহাবী হযরত খালেদ সাইফুল্লাহ (রা.)

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2018

কাজী নাসরুল্লাহ আলাউদ্দিন

 

নবী করীম (সা.) থেকে আল্লাহর তরবারি উপাধি প্রাপ্ত বিশিষ্ট সাহাবী হযরত খালেদ ইবনুল ওয়ালীদ (রা.) এর জীবনী নিম্নে আলোচনা করা হলো .-

১. নাম ও বংশ পরিচয় .- তাঁর নাম খালেদ, উপনাম আবু সোলায়মান ও আবুল ওয়ালীদ, উপাধি সাইফুল্লাহ বা আল্লাহর তরবারি। পিতা ওয়ালীদ, তিনি ছিলেন বনু মাখযুম গোত্রপতি। মাতা লুবাবাতুস সুগরা বিনতে হারিস ইবনে হাযান হিলালী, তিনি ছিলেন উম্মুল মুমিনীন হযরত মায়মুনা বিনতে হারিসের বোন।

২. জন্মগ্রহণ সময় .- তিনি হিজরতের পূর্বে ৫৮১ খ্রিস্টাব্দে বনু মাখযুম গোত্রে সর্দার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

৩. প্রাথমিক জীবন .- জীবনের প্রথমদিকে তিনি ইসলামের ঘোর শত্রু ছিলেন। বদর, উহুদ ও খন্দকের যুদ্ধে মুসলমানের বিরুদ্ধে অস্ত্রধারন করেন। তবে সে যুগের নৈতিক ও চারিত্রিক অধঃপতনের প্রাধান্য থাকলেও তিনি ছিলেন নিষ্কলুষ চরিত্রের অধিকারী।

৪. ইসলাম গ্রহণ .- মহান আল্লাহ তায়ালার অশেষ দয়ায় তার ভাই ওয়ালীদের মাধ্যমে তিনি ইসলামের প্রতি ক্রমান্বয়ে আকৃষ্ট হন এবং মক্কা বিজয়ের পূর্বমুহূর্তে ইসলামের আরেক ঘোর শত্রু আমর ইবনুল আসের সাথে একত্রে ইসলাম গ্রহণ করেন।

৫. সেনাপ্রধান ও সাইফুল্লাহ উপাধি লাভ .- ইসলামের পক্ষে জীবনের প্রথম যুদ্ধ হলো মূতার যুদ্ধ। আর এ যুদ্ধে পরপর তিনজন প্রধান সেনাপতির শাহাদাত বরনের পর তিনি সেনাপ্রধান হিসাবে অসাধারন বীরত্ব প্রদর্শনের জন্য  রাসূল (সা.) কর্তৃক সাইফুল্লাহ বা আল্লাহর তরবারি উপাধি লাভ করেন।

৬. বিভিন্ন জিহাদে অংশগ্রহণ .- তিনি মূুতার যুদ্ধ ছাড়াও মক্কা বিজয়, হুনাইন, তায়েফ, তাবুক, হযরত আবু বকর ও ওমর (রা.) সময়েও পরিচালিত বিভিন্ন যুদ্ধে প্রধান সেনাপতি অথবা সাধারন সৈনিক হিসাবে অংশগ্রহণ করে বিজয় লাভ করেন।

৭. ভ- নবী দমন .- তার জীবনের অন্যতম সাফল্য হল খলিফা আবু বকর (রা.) নির্দেশে ভ- নবী মুসলামায়তুল কাজ্জাব ও তার অনুসারীদেরকে যুদ্ধের মাধ্যমে পরাজিত ও হত্যা করা।

৮. রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন .- হযরত ওমর (রা.) তাকে সেনাপ্রধান থেকে অব্যহতি দিয়ে রাহা, হিরাত, আমদ, লারতাসহ বিভিন্ন অঞ্চলে গভর্নর হিসাবে দায়িত্ব প্রদান করেন।

৯. হাদীস বর্ণনা .- ইসলাম গ্রহণের পর জীবনের বেশীরভাগ সময় তিনি জিহাদে কাটিয়েছেন, ফলে হাদীস সংগ্রহের মনোযোগ দিতে পারেননি। তবু বিভিন্নভাবে তাঁর থেকে ১৮টি হাদীস বর্ণনার তথ্য পাওয়া যায়।

১০. ইন্তেকাল .- এ মহান বীর সাহাবী ২১ হিজরী মোতাবেক ৬৪১ খ্রিষ্টাব্দে ৬০ বৎসর বয়সে সিরিয়ার হিমস নগরীতে মাওলা পাকের দীদার লাভে পরপারে পাড়ি জমান।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]