• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » দুবেলা পানি ছিটিয়েও ধুলাদূষণ নিয়ন্ত্রণে আসছে না পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর


দুবেলা পানি ছিটিয়েও ধুলাদূষণ নিয়ন্ত্রণে আসছে না পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোর

আমাদের নতুন সময় : 10/02/2019

শাকিল আহমেদ : শুষ্ক মৌসুমে ঢাকা মহানগরীতে ধুলাবালু দূষণের প্রকোপ অত্যন্ত বেড়ে গেছে। দূষণের ভয়াবহ প্রভাব পড়ছে পরিবেশের উপর। দূষণের কারণে স্বাস্থ্যগত ও আর্থিক সমস্যাসহ নানা দুর্ভোগে পড়েছে নগরবাসী। সকাল-বিকাল প্রধান সড়কগুলোতে দুবেলা পানি ছিটিয়েও দূষণ নিয়ন্ত্রণে আনতে পাড়ছে না সিটি কর্পোরেশন।

এদিকে ধুলা দূষণ বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের দাবিতে গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার সামনে মানববন্ধন করেছেন পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ও নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম (নাসফ)সহ সমমনা বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠন।

শুষ্ক মৌসুমে হাজার হাজার ইটভাটায় ইট প্রস্তুত ও পোড়ানো হয়। অপরিকল্পিতভাবে গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, ড্রেনেজ এবং রাস্তাঘাট উন্নয়ন, মেরামত ও সংস্কার কার্যক্রমও বেড়ে যায়। মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েসহ অন্যান্য মেগাপ্রকল্পের জন্য রাস্তা ও আশেপাশের বিশাল এলাকা জুড়ে রাস্তা খোঁড়াখুড়ি চলছে। এই মৌসুমে গ্যাস-পানি ও বিদ্যুতের লাইন স্থাপনের জন্য রাস্তা খোঁড়াখুড়ি, ভবন নির্মাণের সময় মাটি, ইট, বালুসহ অন্যান্য নির্মাণ সামগ্রী রাস্তা-ফুটপাতে ফেলে কাজ করছে সরকারি-বেসরকারি কনস্ট্রাকশন প্রতিষ্ঠানগুলো। নির্মাণসামগ্রীগুলো ঢাকনাবিহীন ট্রাকে করে শহরে পরিবহন করছে তারা।

সিটি কর্পোরেশন এবং ওয়াসার ড্রেন পরিস্কার করে ময়লার স্তুপ রাস্তার পাশে  রাখা হচ্ছে। দোকান পাট ও গৃহস্থালীর আবর্জনা যেখানে সেখানে ফেলে রাখা, মেরামতহীন ভাংগাচোরা রাস্তায় যানবাহন চলাচল, পুরাতন ভবন ভাঙ্গা, মেশিনে ইট ভাঙ্গা, যানবাহনের কালো ধোঁয়া, শিল্পপ্রতিষ্ঠানের ধোঁয়া, ইত্যাদি ধুলা দূষণের অন্যতম কারণ বলে মনে করছেন পরিবেশবাদিরা।

এবিষয়ে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) নগরায়ন ও সুশাসন কমিটির সদস্য সচিব স্থপতি ইকবাল হাবিব বলেন, ধুলা দূষণে শ্বাসকষ্ট, হাঁপানী, এলার্জি, চর্মরোগসহ নানা জটিল রোগব্যাধি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ধুলা দূষণে জনদুর্ভোগের পাশাপাশি একদিকে যেমন স্বাস্থ্যগত সমস্যা হচ্ছে তেমনি আর্থিক ও পরিবেশেরও ক্ষতি হচ্ছে। জনস্বাস্থ্য, পরিবেশ ও অর্থনীতির উপর নেতিবাচক প্রভাব বিবেচনায় অবিলম্বে ধুলা দূষণ বন্ধে  জরুরী কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া দরকার।

এবিষয় ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের সচিব রবীন্দ্র শ্রী বড়–য়া বলেন, হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ি ডিএনসিসি এলাকার প্রধান সড়কগুলোতে সকাল-বিকাল দুবেলা পানি ছেটানো হচ্ছে। তবে এবিষয় কনস্ট্রাকশন প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরো সচেতন হতে হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের পরিবহনের ব্যবস্থাপক গোলাম মোর্শেদ বলেন, ডিএসসিসির ভিআইপি ও প্রধান সড়কগুলোকে প্রতিদিন দুবার পানি ছিটানো হচ্ছে তবে আমাদের পরিবহন সংকট রয়েছে। বর্তমানে ডিএসসিসিতে ৯টি গাড়ি আছে যার প্রতিটিতে ৭ হাজার লিটার পানি ধরে কিন্তু এটি আমাদের জন্য পর্যাপ্ত নয়, ধুলা নিয়ন্ত্রণে আরো কিছু গাড়ি দরকার। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]