সামাজিক বৈষম্য দূর করা সরকারের মূল দায়বদ্ধতা বললেন সুলতানা কামাল

আমাদের নতুন সময় : 10/02/2019

ইউসুফ বাচ্চু : তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল বলেছেন, ক্ষমতাসীনদের মূল দায়বদ্ধতা সমাজে বৈষম্য দূর করার জন্য লড়াই করা। আর এটাই তাদের বড় চ্যালেঞ্জ। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ইনস্টিটিউট অফ ওয়েলবিং আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, যাদের হাঁটা চলায় সমস্যা আছে, কিংবা সিঁড়ি বেয়ে উঠতে পারেন না তাদের জন্য তেমন কোনো ব্যবস্থা রাখা হয় না পাবলিক বিল্ডিংগুলোতে। লিফট এবং টয়লেটের মতো কাঠামোগত সুবিধা প্রতিবন্ধী মানুষদের জন্য তৈরি করা না হয়, নাগরিক হিসেবে আমরা প্রত্যেকেই যেসব সুযোগ সুবিধা দাবি করি, সেগুলো কিন্তু সাধারণ পাবলিকের জন্য তৈরি হয়। এই গুলো সুবিধার ন্যায্য দাবিদার কিন্তু তারা, যারা শারীরিকভাবে আংশিক সক্ষম। তাদের কথা চিন্তা করে কিন্তু এই বিল্ডিংগুলো তৈরি করা উচিত। বাংলাদেশ জন্মের পর সবচেয়ে বড় কথা ছিল যে কোনো মানুষের প্রতি কোনোরকম বৈষম্য করা হবে না। সেই নীতিতে আমি যদি বিশ্বাসী থাকি, আজকে যারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি বলে দাবি করে ক্ষমতায় আরহণ করেছেন কিংবা ক্ষমতায় থেকে গেলেন, তাদের মূল দায়বদ্ধতা হলো এই বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াইটা শক্ত করা এবং যার যে বিষয়ে কষ্ট আছে তার জন্য দৃশ্যমান ও কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া।

তিনি বলেন,আমরা এখানে এমন কেউ নেই যে বলতে পারি আমার কোনো সীমাবদ্ধতা নাই। আমরা প্রত্যেকেই সীমাবদ্ধ। সেই সীমাবদ্ধতার কয়েক রকমের রয়েছে। সেই জায়গায় সবসময় আমাদের নিজেদেরকে দাঁড় করাতে হবে। সবারই সীমাবদ্ধতার জায়গায় কিছু দাবি রয়েছে, যেদিন আমরা সেটা পূরণ করতে পারবো, গ্রহণযোগ্য অবস্থানে নিয়ে আসতে পারবো, সেদিন আমরা নিজেদেরকে উন্নত বলতে পারবো, বলতে পারবো আমরা নিজেদেরকে সভ্যতার একটি পর্যায়ে নিয়ে যেতে পেরেছি। কারণ আমরা সমাজে, আমার রাষ্ট্রে পিছিয়ে পড়া মানুষরা কষ্টে থাকে না। পিছিয়ে পড়া মানুষরা সমান অধিকার নিয়ে, সমান মর্যাদা নিয়ে একটা জায়গায় দাঁড়াতে পারে। তারা মনে করে না যে আমি এই পরিবার এই সমাজে জন্মগ্রহণ করলাম বলে অবহেলিত, অপমানিত। আমাদের যত মানুষ পিছিয়ে পড়ে থাকবে,ততকিন্তু আমরা সমাজ হিসেবে পিছিয়ে পড়ে থাকবো। আর সবচেয়ে বড় কথা বাংলাদেশ পিছিয়ে থাকবে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected].com