• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » তাবলীগ ভিসায় শর্তের কারণে ৬০ শতাংশ ভারতীয় মুসুল্লির বিশ্ব ইজতেমায় যোগদান অনিশ্চিত


তাবলীগ ভিসায় শর্তের কারণে ৬০ শতাংশ ভারতীয় মুসুল্লির বিশ্ব ইজতেমায় যোগদান অনিশ্চিত

আমাদের নতুন সময় : 11/02/2019

ফজলে মমিন : ভিসায় শর্ত আরোপ করায় অনেক বিদেশী মুসুল্লির এবার বিশ^ইজতেমায় যোগ দেয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন তাবলীগ মুরুব্বিরা। বিশেষ করে ভারতীয় ৬০ শতাংশ মুসুল্লি এবার এ বিশ^ইজতেমায় অংশ নিতে পারবেন না।

বিশ^ইজতেমার প্রস্তুতি কমিটির মুরুব্বি ইঞ্জিনিয়ার মো. মাহফুজুর রহমান জানান, বিশ^ইজতেমার বিদেশী মুসুল্লিদের ভিসা দেয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন শর্ত আরোপ করা হয়েছে। এতে অল্প সময়ে সকল শর্ত পূরণ করে মুসুল্লিদের টঙ্গী বিশ^ইজতেমায় অংশগ্রহণ প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে ভারতীয় নাগরিকদের ক্ষেত্রে যারা নিজামউদ্দিন বা সা’দ বিরোধী তাবলীগী মুসুল্লীদের বোম্বের (নেরুল) মার্কাজ এবং দিল্লির (ফয়েজ-ই এলাহী) মার্কাজের শর্ত সাপেক্ষে ভিসা দেয়ার কথা সভায় আলোচনা হলেও সিদ্ধান্তে তা দেয়া হয়নি। ফলে ৬০ শতাংশ ভারতীয় মুসুল্লিরা তাবলীগ ভিসা পাবেন না। কারণ ৬০ শতাংশ ভারতীয় তাবলীগী মুসুল্লি উক্ত দুই মার্কাজের সঙ্গে যুক্ত। এ ছাড়া কোন মুসুল্লি টুরিস্ট ভিসায় ইজতেমায় অংশ গ্রহণ করতে পারবে না। বিশ^ ইজতেমায় যোগ দিতে বিদেশী মুসুল্লিদের শর্ত সহজীকরণ না করলে মুসুল্লি সংখ্যা কমে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে যারা অন-অ্যারাইভাল ভিসা পাবেন তাদেরকে তাবলীগের ক্ষেত্রে যে সকল শর্ত দেয়া হয়েছে তা শিথিল করলে তাবলীগের মেহমান অনেক বেড়ে যাবে।

১০ শর্তে বিশ^ইজতেমায় অনুষ্ঠানে জোবায়ের পন্থী এবং সা’দ পন্থী তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীরা এবারের বিশ^ইজতেমায় অংশ নিতে রাজি হলেও  জোবায়ের পন্থীরা সা’দ কান্ধলবির সঙ্গে তার ছেলে ইউসুফ কান্ধলবিও টঙ্গীর বিশ^ ইজতেমায় অংশ নিন তাতে রাজি নন।

এদিকে শুক্রবার সকালে টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে গিয়ে দেখা গেছে, মাওলানা জুবায়ের পন্থীদের নেতৃত্বে বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার লোকজন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে বিশ^ইজতেমা ময়দানে প্যান্ডেল নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন। কেউ বিদ্যুতের লাইন টানছেন, কেউ চট টানাচ্ছেন, কেউ খুঁটি পুঁতছেন। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি বিশ^ইজতেমা শুরুর আগেই মাঠের প্রস্তুতির কাজ শেষ হয়ে যাবে বলেন জেবায়ের পন্থী মুরুব্বি মেজবাহ উদ্দিন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক সাদ পন্থী এক শীর্ষ মুরুব্বী জানান, ইজতেমা ময়দানের প্রস্তুতি কাজে সাদ পন্থীরাও অনুমতি পেলে কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা সম্ভব হত। ইজতেমা শুরুর আগে এই কদিনে বিরাট ময়দানের প্রস্তুতি তাদের পক্ষে সম্পন্ন করা সম্ভব না হতে পারে। অপর দিকে তাবলীগে ভিসার ব্যাপারে তিনি জানান, সাদ ও জোবায়ের পন্থী উভয়ই মার্কাজের  পক্ষ থেকে স্পন্সর করার বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে ভারতের মুসুল্লীদের টঙ্গী ইজতেমায় আগমনে কোন সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তবে সাদ কান্ধলভি ইজতেমায় না গেলে ভারত থেকে এমনিতেই অনেক মসুল্লী টঙ্গীর বিশ^ইজতেমায় যোগ না দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এটা আঁচ করতে পেরে জোবায়ের পন্থীরা ভিসা সহজীকরণের ছুঁতায় ভারতীয় মুসুল্লী না আসতে পারার কথা বলছেন ।

একই ময়দানে আসন্ন ১৫-১৬ ফেব্রুয়ারি দুইদিন জোবায়ের পন্থী এবং ১৭-১৮ ফেব্রুয়ারি দুইদিন  সাদ পন্থীদের তত্ত্বাবধানে বিশ^ইজতেমা অনুষ্ঠানের জন্য নির্ধারণ করা হয়। তবে মাঠ প্রস্তুতির জন্য জোবোয়ের পন্থীরা দায়িত্ব পালন করছেন।

 

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]