• প্রচ্ছদ » আজকের পত্রিকা » গল্পবিহীন নাটক যারা নির্মাণ করছে প্রকৃত অর্থে তারা শিল্পচর্চা করতে চায় না বলে মনে করেন তরুণ নির্মাতা আওরঙ্গজেব


গল্পবিহীন নাটক যারা নির্মাণ করছে প্রকৃত অর্থে তারা শিল্পচর্চা করতে চায় না বলে মনে করেন তরুণ নির্মাতা আওরঙ্গজেব

আমাদের নতুন সময় : 12/03/2019

সৌরভ নূর : অনেকদিন ধরেই দর্শকরা অভিযোগ তুলছে বাংলা নাটকের মানহীনতা নিয়ে। বিশেষ করে ইউটিউব মাধ্যমে প্রচারিত অধিকাংশ নাটকেই কোনো গল্প থাকে না, নেই কোনো মোরাল, পুরো নাটকজুড়েই চলে শুধু জোরপূর্বক দর্শক হাসানোর চেষ্টা। অথচ সেগুলোতে আদৌ সেগুলো কোনো হাসির গল্পই থাকে না। বাংলা নাটকের এমন দুর্দিন কেন এলো এবং কারা এর জন্য দায়ী? এ প্রসঙ্গে তরুণ নির্মাতা ও গল্পকার আওরঙ্গজেব বলেন, এর অন্যতম কারণ দর্শকের চাহিদা। এছাড়া শিল্প ও পুঁজির পারস্পারিক দ্বন্দ্ব তো রয়েছেই। একটা শ্রেণি ব্যবসা করতে চায়, তাদের কাছে শিল্পের গুণগত মান নিয়ে কোনো ভাবনা নেই। প্রকৃত অর্থে তারা শিল্পচর্চা করতে চান না, কিন্তু শিল্প চায় চর্চা।

তিনি বলেন, সুড়সুড়ি দেয়া, বিকৃত ভাষার ব্যবহার, গল্পবিহীন রোমান্টিক নাটকগুলোই দর্শক বেশি দেখে। খেয়াল করলে দেখে থাকবেন ইউটিউব মাধ্যমে ওপরের দিকে থাকা নাটকগুলো গৎবাঁধা গল্পের কাতুকুতু দেয়া হাসির নাটক। কিন্তু সেগুলোই ভিউয়ের তালিকায় এগিয়ে এবং র‌্যাঙ্কিংয়ের তালিকাইও ওপরের দিকে। ফলে প্রডিউস করা কোম্পানিগুলোও সেরকম চিত্রনাট্যের ওপর টাকা ঢালতে চায়। এর ফলে নির্মাতাও পরোক্ষভাবে নির্মাণে বাধ্য হচ্ছে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার, দর্শক যদি দেখতে চাই নির্মাতারা কেন বানাবে না? তবে এটা ঠিক বাজে সংস্কৃতি কখনো প্রতিষ্ঠিত হতে পারে না। ইতোপূর্বেও পারেনি।

একসময়ের বহুল জনপ্রিয় অভিনেতা মোশারফ করিম কিন্তু আস্তে আস্তে তার জনপ্রিয়তা হারাতে বসেছেন। মোশারফ করিম যদি বাংলা নাটকে বেঁচে থাকেন তবে তার কিছু সিরিয়াস চরিত্রের জন্যই বেঁচে থাকবেন এবং আমার মনে হয় এই ধরনের বাজে চর্চা আর বেশিদিন অব্যাহত থাকতে পারবে না। কেননা দর্শক এখন আর সস্তা বিনোদন উপভোগ করতে চায় না। অন্যদিকে নতুন নির্মাতারাও আর এ ধরনের চর্চা চালিয়ে যেতে ইচ্ছুক নয়। সময় এসছে ঘুরে দাঁড়াবার, নতুনভাবে গল্প বলার।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]