কদমতলীর কবির হত্যা ১০ বছর পর টিকটিকি কামাল গ্রেফতার

আমাদের নতুন সময় : 14/03/2019

মাসুদ আলম : রাজধানীর কদমতলী এলাকায় কবির হত্যা মামলার চার্জশীটভুক্ত পলাতক আসামি কামাল হোসেন ওরফে টিকটিকি কামালকে (৩৬) গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। ঘটনার প্রায় ১০ বছর পর গত মঙ্গলবার বিকেলে জুরাইন মেডিকেল রোড থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
পিবিআই ঢাকা মেট্রোর (উত্তর) বিশেষ পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ বলেন, কবির হোসেন (২৫) এর সাথে দীর্ঘদিন ধরে তার পরিবারের সদস্যদের কোন যোগাযোগ ছিল না। তিনি কদমতলী থানার রজ্জব আলী সরদার রোডে ২টি রুম ভাড়া নিয়া থাকতেন। ২০০৯ সালের ১৭ জুন কবির হোসেনের পরিবার জানতে পারে শ্যামবাবুর ট্রাকের গ্যারেজের সামনে কে বা কারা গুলি করে তাকে হত্যা করে। ঘটনার দিন রাতে একটি মোটরসাইকেলে করে কবিরসহ ৩ জন ওই গ্যারেজে যায়। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মো. নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে কদমতলী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। কদমতলী থানা পুলিশ তদন্ত শেষে কামাল, টিকটিকি কামালকে পলাতক দেখিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আদালত অধিকতর তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন।
তিনি আরও বলেন, কামালের বিরুদ্ধে ডেমরা থানার একটি অস্ত্র মামলায় ১০ বছরের সাজা হয়। ওই মামলায় সাড়ে ৪ বছর জেল খেটে উচ্চতর আদালত থেকে জামিনে ছাড়া পান তিনি। জামিনে বের হওয়ার ১ মাসের মধ্যেই এলাকায় প্রভাব বিস্তার সহ সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজি করার জন্য প্রতিপক্ষ কবির হোসেনকে তার সহযোগিদের মাধ্যমে ওই গ্যারেজের ডেকে আনেন। কবির গ্যারেজে গেলে কামাল হোসেন ওরফে টিকটিকি কামাল, রাসেল ওরফে রাজাকার রাসেল, লিটন ও জসিম উদ্দিন দোহানদের সঙ্গে চাঁদাবাজির টাকার ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে তর্কবির্তক হয়। কবির হোসেনকে ঘটনাস্থল থেকে লিটন শ্যামবাবুর ট্রাকের গ্যারেজের ভিতর নিয়ে যায়। টিকটিকি কামাল তাকে গুলি করে হত্যা করে। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]