ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছি, তাই ফলাফল নিয়ে কোনো বিশ্লেষণ নেই, বললেন ডাকসু ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তী খান

আমাদের নতুন সময় : 14/03/2019

দুর্জয় চক্রবর্তী : সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বিতর্কিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু নির্বাচনের কেন্দ্রীয় সংসদের ভিপি পদপ্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগের শিক্ষার্থী অরণি সেমন্তি খান। ডিনস অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত মেধাবী শিক্ষার্থী অরণি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী দুই হাজার ৬৭৬ ভোট লাভ করেছেন। এর আগে নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন, নিপীড়ন বিরোধী আন্দোলনসহ শিক্ষার্থীদের অধিকার রক্ষায় বিভিন্ন আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন তিনি।
নির্বাচনের ফলাফল কেমন হয়েছে এ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে অরণি সেমন্তী খান বলেন, ‘আমরা ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছি, তাই ফলাফল নিয়ে আমাদের তেমন কোনো বিশ্লেষণ নেই। আগে সুষ্ঠু নির্বাচন হোক তারপর আমরা ফলাফল নিয়ে মন্তব্য করব।’ নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুরের দায়িত্ব গ্রহণ করুক নাকি আন্দোলনে যোগ দিক, এ সিদ্ধান্ত প্রসঙ্গে তার অবস্থান জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার তবে তাকে অবশ্যই নিজের পদের জায়গা থেকে ছাত্রদের অধিকারের কথা ভাবতে হবে। তিনি যেন পদের মোহে পড়ে না থেকে ছাত্রদের পক্ষে অবস্থান নেন।’ ডাকসুকে ঘিরে চলমান আন্দোলন আরো সম্প্রসারিত হওয়া প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, জাতীয় রাজনীতির মারপ্যাঁচে শিক্ষার্থীদের মৌলিক সমস্যাগুলো হারিয়ে যাবে। তাদের লড়াই শিক্ষার্থীদের মৌলিক দাবিদাওয়া নিয়েই, তাই সেখান থেকে কারো মনোযোগ হারানোর কোনো সুযোগ নেই।
স্বতন্ত্র জোট থেকে ভিপি পদে নির্বাচনে অংশ নেয়া অরণী নির্বাচনকেন্দ্রিক দাবিদাওয়া আদায়ের আন্দোলনে অন্যদের সঙ্গে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে কতটুকু স্বাতন্ত্র্য বজায় রাখতে পারবেন জানতে চাওয়া হলে বলেন, তাকে অন্যদের সঙ্গে সমঝোতা করতে হচ্ছে না। তারা নিজেদের দাবি দাওয়া জানাচ্ছেন এবং সে ক্ষেত্রে অন্যদের চাওয়ার সঙ্গে তাদের চাওয়া মিলে যাওয়াতেই শুধু তারা একজোট হয়েছেন। গত ১২ মার্চ তিনি তার ওপর হওয়া হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি এবং ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে সন্ত্রাসী হিসেবে আখ্যা দিয়ে তার সঙ্গে ছবি তুলতে অস্বীকৃতি জানান, যার ভিডিও সামাজিক মাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়। ডাকসুতে উভয় পক্ষই নির্বাচিত হলে তিনি তাদের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করার ক্ষেত্রে কতটুকু সমঝোতা করতে রাজি হতেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের স্বার্থে তাদের সঙ্গে কাজ করতে রাজি, তবে তাদের স্বভাবের কথা সবসময় মাথায় রেখেই কাজ করতে হবে। সম্পাদনা : আলমগীর




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]