বাংলাদেশে উন্নত মানের শিক্ষা নেই, বললেন অধ্যাপক ড. সলিমুল্লাহ খান

আমাদের নতুন সময় : 14/03/2019

হিমাদ্রি শেখর : বর্তমান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো উচ্চশিক্ষা প্রদান করতে পারছে না। শিক্ষার্থীদের কাজ পাবার স্বার্থে উচ্চশিক্ষার চেয়ে কারিগরি শিক্ষাকেই প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। আইন, এমবিবিএস অথবা বুয়েট এগুলো উচ্চশিক্ষা নয়, এসব মূলত কারিগরি শিক্ষা, বললেন ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব) এর অধ্যাপক ড. সলিমুল্লাহ খান। গত মঙ্গলবার একটি অনলাইন পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বলেন, এদেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় শুধু শিক্ষার্থীদের দোষারোপ করে লাভ নেই। উচ্চ মানের শিক্ষার জন্যে অবশ্যই শিক্ষার্থীদের উন্নত পরিবেশের পূর্ণাঙ্গ ব্যবস্থা আমরা করতে পারিনি।
সলিমুল্লাহ খান বলেন, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের শিক্ষার মান কেমন, তার ধারণা ডাকসু নির্বাচনের মধ্যেই পাওয়া যায়। বিশ^বিদ্যালয়ে মেধাবী শিক্ষকদের ছেড়ে কোটায় শিক্ষক নিয়োগ হলে এভাবেই ব্যালট বাক্স চুরি হবে। নৈতিক অবক্ষয়ী এ ধরনের শিক্ষকদের কাছ থেকে শিক্ষা নেবার তেমন কিছু নেই বলে মনে করেন ইউল্যাব অধ্যাপক ড. সলিমুল্লাহ।
তিনি বলেন, প্রতি বছর বাজেটে বাংলাদেশে শিক্ষা খাতে ৫০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করা হলেও এটি জাতীয় আয়ের ২ ভাগেরও কম। জাতিসংঘ ও বিভিন্ন সংস্থার মতে, একটি দেশের জাতীয় আয়ের ৬ ভাগ শিক্ষা খাতে ব্যয় করতে হবে। আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতের শিক্ষা খাতে ব্যয় বাৎসরিক আয়ের ৩.৮ ভাগ।
ড. সলিমুল্লাহ বলেন, শিক্ষার অধিকার কার কতটুকু, অবশ্যই আমাদের সংজ্ঞায়িত করতে হবে। বর্তমানে উচ্চশিক্ষা বিশেষ কিছু মানুষের জন্যে নির্দিষ্ট হয়ে গেছে, যে শিক্ষা মেগা শিক্ষা পদ্ধতির সঙ্গে যুক্ত।
উচ্চশিক্ষার সঙ্গে বাজারের সম্পর্ক থাকতে হবে এমন নিয়ম নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, উচ্চশিক্ষার সম্পর্ক হবে দেশের স্বার্থে। দেশের টাকায় শিক্ষিত হয়ে বিদেশে চলে যাওয়া যাবে না। একজন শিক্ষার্থী শুধু নিজের নয়, দেশেরও সম্পদ। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]