অনেক এনজিও রোহিঙ্গাদের নিয়ে  কাজ করছে অসৎ উদ্দেশ্যে

আমাদের নতুন সময় : 15/03/2019

আনিস তপন : অনেক এনজিও অসৎ উদ্দেশ্য রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করছে। গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে লক্ষ করেছি যারা সেখানে কাজ করছে তাদের মধ্যে অনেক এনজিও ইল-মোটিভ নিয়ে কাজ করছে। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এ কথা বলেন কমিটির সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক।

বর্তমান সরকারের প্রথম এই মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয় মন্ত্রী বলেন, শুনলে অবাক হবেন, রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করা এনজিওগুলো গত সেপ্টেম্বর থেকে এখন পর্যন্ত হোটেল বিল দিয়েছে দেড়শ কোটি টাকার বেশি। একই সঙ্গে ফ্ল্যাট বাড়ি ভাড়া দিয়েছে আট কোটি টাকারও বেশি। রোহিঙ্গাদের জন্য বিদেশ থেকে যে টাকা তারা নিয়ে আসে, তার ২৫ শতাংশ টাকাও ভূক্তভোগীদের জন্য খরচ করে না তারা। কারণ ৭৫ ভাগই খরচ হয় এনজিওকর্মীদের চলাফেরা ও দেখাশোনা করার জন্য। এটা খুবই দু:খজনক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিষয়টি আরও খতিয়ে দেখার জন্য আমরা গোয়েন্দা সংস্থাকে বলেছি। অভিযোগের যথার্থতা নিরূপণের জন্য তাদের অনুরোধ করা হয়েছে।

খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করা এনজিওদের সংখ্যা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এটা চিহ্নিত করার জন্য গোয়েন্দা সংস্থাকে বলা হয়েছে। তদন্ত করে তাদের নামসহ দেয়ার জন্য গোয়েন্দা সংস্থাকে নির্দেশনা দিয়েছি। কমিটির সভাপতি বলেন, এ সভায় আমরা প্রথমেই সফলভাবে, সুন্দরভাবে নির্বাচন পরিচালনার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেভাবে কাজ করেছে, নির্বাচন কমিশনকে তারা যেভাবে সহায়তা করেছে সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছি। মাদকদ্রব্যের প্রসার ও ব্যবহার সম্পর্কে তিনি বলেন, সীমান্ত দিয়ে যারা মদকদ্রব্য আনা-নেয়া করছে তা বন্ধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অত্যন্ত সফল হয়েছে।

সভায় যানজট প্রসঙ্গে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, পরবর্তী মিটিংয়ে মেয়র মহোদ্বয়দের আমরা সভায় আহবান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ, উনাদের সক্রিয় সহযোগিতা ছাড়া ঢাকা শহরে যানজট পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব নয়। যানজট নিয়ন্ত্রণ সিটি করপোরেশনের দ্বায়িত্বে তাই সমন্বিতভাবে কাজ করার লক্ষ্যে আগামী সভায় মেয়রদের ডাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো দাবি করে মোজাম্মেল হক বলেন, ইনশাআল্লাহ এটা যাতে অব্যাহত থাকে। সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদের প্রতি কঠোরভাবে নজরদারির জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বলা হয়েছে। কারণ প্রিভেনশন ইজ বেটার দেন কিউর। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]