• প্রচ্ছদ » » ধীরে ধীরে আমরা আমাদের গ্রামগুলো খুন করে ফেলছি


ধীরে ধীরে আমরা আমাদের গ্রামগুলো খুন করে ফেলছি

আমাদের নতুন সময় : 15/03/2019

লুৎফর রহমান রিটন

বহুদিন গ্রামে যাইনি। মেঠোপথে হাঁটা হয়নি সে অনেকদিন। দেখিনি ধানের ক্ষেতে সবুজের কোলাহল। অবশেষে হাঁটা হলো ধান ক্ষেতের সরু আলপথে, কুড়িটি বছর পরে। ফেসবুকে ‘খেজুরের রস’ নিয়ে আমার একটি হাহাকারপূর্ণ পোস্ট পাঠ করে ‘ঊষালোকে’ সম্পাদক বন্ধু শাকেরউল্লাহর হার্দিক উচ্চারণ ছিলো এ রকমÑবাংলাদেশে আসেন স্যার। আপনাকে আমার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাবো। খেজুরের রস খাওয়াবো। ধানক্ষেতে হাঁটবেন। ফর্মালিনের স্পর্শবিহীন মাছ খাওয়াবো আপনাকে। কৈ-শিং-মাগুর-শোল-টাটকিনি যা আপনার পছন্দ। ১৩ ফেব্রæয়ারি ভোরে আমাকে আর আহমাদ মাযহারকে সঙ্গে নিয়ে শাকেরউল্লাহ যাত্রা করলেন মাইজদী, নোয়াখালীর সোনাপুর গ্রামের উদ্দেশ্যে। আহা কী সুন্দর আমাদের এই বাংলাদেশ! লকলকিয়ে বেড়ে ওঠা ধানের ক্ষেতের গন্ধ অনুভব করতে দীর্ঘ একটা শ্বাস নিতেই করোটির ভেতরে হামলে পড়লো গুচ্ছ গুচ্ছ সবুজের ঘ্রাণ। এ রকম প্রশান্তিমাখা সবুজ পৃথিবীর কোত্থাও নেই।
পথের দু’পাশে প্রহরীর মতো দাঁড়িয়ে থাকা আমগাছে দামি অলঙ্কারের মতো ফুটে আছে অজ¯্র আমের মুকুল। আমের মুকুল থেকে ঝরে পড়ছিলো কেমন একটা নেশা ধরানো সৌরভ। কিছুক্ষণ পর পরই টকটকে লাল রঙের শিমুলের আবাহনে নেচে উঠছিলো মন। কুড়ি বছর পর গ্রামে গিয়ে মনে হলোÑআমরা আমাদের গ্রামগুলোকে খুন করে ফেলছি ধীরে ধীরে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]