• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » মানবাধিকার প্রতিবেদনে শাব্দিক পরিবর্তনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনায় ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট


মানবাধিকার প্রতিবেদনে শাব্দিক পরিবর্তনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনায় ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট

আমাদের নতুন সময় : 15/03/2019

ইমরুল শাহেদ : ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের একজন মুখপাত্র নাবিল আবু রুদেইন যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক মানবাধিকার প্রতিবেদনে পশ্চিম তীর, গাজা উপত্যকা এবং গোলান হাইটকে অধিকৃত এলাকা বলে উল্লেখ না করায়, যুক্তরাষ্ট্রের তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘এই প্রতিবেদন ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি মার্কিন প্রশাসনের বৈরি আচরণেরই অনুবৃত্তি এবং জাতিসংঘের সকল সিদ্ধান্ত-প্রস্তাবের বিপরীত।’ এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা ওয়াফায় বুধবার দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, অংশ বিশেষের এই পরিবর্তন ফিলিস্তিনিদের অধিকারকে খর্ব করার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটা পরিকল্পনা।

ট্রাম্প আশা করছেন আগামী মাসগুলোতে তার বহুল প্রতিক্ষীত ইসরায়েল-ফিলিস্তিন শান্তি পরিকল্পনা প্রকাশ করবেন। ২০১৭ সালে ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করার পর থেকেই ওয়াশিংটনের সঙ্গে সম্পর্ক শীতল করে এনেছে প্যালেস্টাইন। ফিলিস্তিনিরা মনে করেন, ট্রাম্পের শান্তি পরিকল্পনা ইসরায়েলের পক্ষেই যাবে।

বুধবার প্রকাশিত মানবাধিকার প্রতিবেদনে, গোলান হাইটকে ‘ইসরায়েল অধিকৃত’ না বলে ‘ইসরায়েল নিয়ন্ত্রিত’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনটিতে আরো একটি শাব্দার্থিক পরিবর্তন আনা হয়েছে। একটি অংশে আগের শিরোনাম বদল করে নতুন শিরোনাম করা হয়েছে এবং তাতে ‘ইসরায়েল এবং অধিকৃত এলাকা’ কথাটি ব্যবহার না করে, বলা  হয়েছে ‘ইসরায়েল, গোলান হাইটস, ওয়েস্ট ব্যাংক এবং গাজা’।

তবে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, শব্দের পরিবর্তন মানে নীতির পরিবর্তন নয়। ইসরায়েল ১৯৬৭ সালে ছয় দিনের যুদ্ধে গোলান হাইটস, ওয়েস্ট ব্যাংক, ইস্ট জেরুজালেম এবং গাজা উপত্যকা দখল করে নিয়েছে। পরে তারা গোলান হাইটস এবং পূর্ব জেরুজালেমকে ইসরায়েলের মূল ভূখ-ের সঙ্গে যুক্ত করে নেয়, যা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কখনোই স্বীকৃতি দেয়নি। কিন্তু তারা গাজা উপত্যকা থেকে সরে গেলেও ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে তিন বার যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে এবং গাজাকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। পশ্চিম তীরে তাদের দখল দারিত্ব বজায় রেখেছে এখনও।

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]