শখের বশে বলিউডে শিমলা

আমাদের নতুন সময় : 15/03/2019

ইমরুল শাহেদ : বিবাহ বিচ্ছেদ এবং তার সাবেক স্বামী পলাশ আহমদের বিমান হাইজ্যাকের চেষ্টায় নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে অভিনেত্রী অভিষেকেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া শিমলা আলোচনায় আসেন। এ সময়ে তিনি কলকাতা অবস্থান করছিলেন। এরপর শোনা যায় তিনি রয়েছেন মুম্বাইতে। সেখানে বসেই ঢাকার একটি বার্তা সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘শখের বশে মুম্বাইতে থিতু হয়েছেন।’ সেখানে তিনি ইতোমধ্যে অর্পণ রায় চৌধুরী পরিচালিত ‘সফর’ নামে একটি হিন্দি ছবির কাজ শেষ করেছেন। বার্তা সংস্থাটিকে তিনি আরো বলেছেন, গত বছরের শেষভাগে তিনি কলকাতা হয়ে মুম্বাইয়ের একটি ভাড়া করা ফ্ল্যাটে উঠেছেন। তিনি বলেন, ‘শখের বশে এখানে এসেছি। যতদিন ভালো লাগে ততদিন কাজ করবো। এখানেই সারাজীবন কাজ করতে হবে এমন কোনো কথা নেই।’
মুম্বাইতে পাড়ি জমাবার আগে তিনি ঢাকার চলচ্চিত্রে প্রায় অনিয়মিত হয়ে পড়েছিলেন। বলতে গেলে ১৯৯৯ সাল থেকে তার ক্যারিয়ার শুরু হয়ে ২০১৫ সালে এসে একেবারেই থেমে গিয়েছিল। এ সময়ে তিনি সীমিত সংখ্যক ছবিতেই অভিনয় করেছেন বলে বলা যায়। তার অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে ম্যাডাম ফুলি ছাড়াও রয়েছে গঙ্গাযাত্রা, রুপগাওয়াল, নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ, নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প, নাইওর, বোমা হামলা ও ম্যাডাম ফুলি ২ । শেষ ছবিটি এখনো নির্মাণাধীনই রয়েছে। এছাড়া তিনি কলকাতার সমাধি ছবিতেও অভিনয় করেছেন। বোমা হামলা ছবিতে তিনি দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন।
শিমলা বার্তা সংস্থাটিকে জানিয়েছেন, ‘সফর’ ছবির পর আপাতত নতুন কোনো চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হননি। ‘নতুন একটি ইন্ডাস্ট্রিতে এলে অনেক ধ্যান নিয়ে কাজ করতে হয়। আপাতত সবকিছু গুছিয়ে নিচ্ছি।’
মুম্বাইয়ের ছবিতে কাজ করতে হলে হিন্দি ভাষা জানতে হয়। তিনি ইতোমধ্যে কোর্স করে হিন্দি ভাষা অনেকটা রপ্ত করেছেন বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘এখনও পুরোপুরি পারি না; কাজ চালিয়ে নেওয়া যায় আরকি। তাছাড়া কাজের জায়গাটা প্রায় একই রকম। আমাদের অভিনয়ই তো করতে হয়।’
শিমলা বার্তা সংস্থাটিকে বলেছেন, বছর দুয়েক ধরে মুম্বাইয়েই বাস করছেন তিনি; সর্বশেষ গত ঈদুল আজহায় গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ফিরে উট কোরবানী দিয়েছিলেন তিনি। তারপর আর দেশে ফেরেননি তিনি।
প্রশ্ন হচ্ছে, শিমলা ২০১৮ সালের ৩ মার্চ নারায়নগঞ্জের পলাশ আহমেদ নামে এক যুবককে বিয়ে করেন এবং একই বছরের ৬ নভেম্বরে ১০ মাসের মধ্যে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। পলাশ আহমেদ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের একটি বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টাকালে কমান্ডো অভিযানে চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিহত হন। শিমলা তখন আলোচনায় আসেন। তাহলে বিবাহ বিচ্ছেদের আগে পর্যন্ত তিনি ঢাকায় ছিলেন। ডিভোর্স দিয়ে তিনি কলকাতা চলে যান । কলকাতা থেকে ফিরে শহিদুল হক খানের বীরপ্রতীক কাকন বিবি ছবিতে কাজ করার কথা ছিল। তিনি আর সেখান থেকে দেশে ফেরেননি। এর মানে দুই বছর নয়, তিনি কয়েক মাস থেকে মুম্বাইতে অবস্থান করছেন। পলাশ আহমেদকে বিয়ে এবং ডিভোর্সের আলোচনাকে পাশ কাটিয়ে অভিনয়ে মনোযোগী হয়েছেন বলে জানান শিমলা। ঢাকার ছবি নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশে আমার সব আছে। ভালো কোনো চলচ্চিত্রের অফার পেলেই দেশে ফিরবো। অন্যথায় আপাতত দেশের ফেরার কোনো পরিকল্পনা নেই।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]