• প্রচ্ছদ » গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ » ঔপন্যাসিক জহির রায়হানের শান্তির হাটে নয়, বর্তমানের মন্তু ও টুনিরা চুড়ি কিনতে ব্যস্ত টিএসসি ও শাহবাগ এলাকায়


ঔপন্যাসিক জহির রায়হানের শান্তির হাটে নয়, বর্তমানের মন্তু ও টুনিরা চুড়ি কিনতে ব্যস্ত টিএসসি ও শাহবাগ এলাকায়

আমাদের নতুন সময় : 13/04/2019

হিমাদ্রি শেখর : প্রখ্যাত বাংলাদেশি ঔপন্যাসিক জহির রায়হান রচিত ‘হাজার বছর ধরে’ উপন্যাসে শান্তির হাটে গিয়ে গল্পের নায়ক মন্তু মিয়ার কাছে চুড়ি কেনার আবদার ধরেছিলো বুড়ো মকবুলের তৃতীয় স্ত্রী ও ঔপন্যাসের নায়িকা দুরন্ত কিশোরী বধূ টুনি। কিন্তু বাঙালি ঐতিহ্যের অন্যতম প্রধান উৎসব পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে বর্তমানের মন্তু ও টুনিরা চুড়ি কিনতে ব্যস্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সামনে, টিএসসি ও শাহবাগের আশপাশ এলাকায়।
রাত পোহালেই বাঙালি ঐতিহ্যের অন্যতম প্রধান উৎসব পহেলা বৈশাখ-১৪২৬কে বর্ষবরণ করে নিতে বাঙালিরা মেতে উঠেছে নানা উৎসবে। বাঙালির মনে বাজছে কবিগুরুর রচিত গান ‘এসো হে বৈশাখ এসো এসো…।’
এই বাংলার গ্রামীণ ঐতিহ্যের রেখাচিত্রের সঙ্গে বাঙালি নারী ও চুড়ির সম্পর্ক বহুদিনের। বৈশাখকে সামনে রেখেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সামনে, টিএসসি ও শাহবাগের আশপাশ এলাকায় জমে উঠেছে চুড়ি, টিপ, ফিতায় ভরানো ত্রিশ থেকে চল্লিশটির বেশি ছোট-বড় মনিহারের দোকান। পথের ধারের এসব মনিহারের দোকানে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বিভিন্ন বয়সের নারীরা নিজেদের পছন্দের রঙের চুড়ি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতেই ব্যস্ত।
দোকানগুলোতে লাল, নীল, সবুজ, হলুদ, বেগুনী রঙের ছাড়াও নানা রঙের রেশমি, জয়পুরী, সুতার চুড়ি, মক্কেল চুড়ি, তাজমহল, অক্সি ঝুমকা চুড়ি বিক্রি হচ্ছে। রাস্তার পাশে ফুটপাথে অবস্থিত এসব দোকানে ত্রিশ টাকা থেকে দেড়শো টাকা পর্যন্ত নানা রকমের চুড়ি পাওয়া যাচ্ছে।
রুবি নামের এক চুড়ি বিক্রেতা বলেন, কেউ কাচের কিনেন কেউবা আবার সুতার চুড়িও কিনেন। বৈশাখকে সামনে রেখে এখন চুড়ির দাম কমায় রাখি। রুবির স্বামী মনিরুল বলেন, চকবাজার থেকে পাইকারি দরে চুড়ি কিনে বিক্রি করি। নববর্ষ হওয়ায় সীমিত লাভে বিক্রি করছি। দৈনিক এক থেকে দেড় হাজার টাকার চুড়ি বিক্রি করে থাকি।
আরেক চুড়ি বিক্রেতা শাবনূর বলেছেন, অন্যান্য সময়ের চেয়ে নববর্ষকে সামনে রেখে চুড়ির চাহিদা এখন বেশি। বেশিরভাগ মেয়েরা পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখেই নিজেদের পছন্দের রঙের চুড়ি কিনছেন। বিশ^বিদ্যালয় এলাকা হওয়ায় বেচা-বিক্রি ভালোই হচ্ছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]