• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » দ. সুদানি নেতাদের পায়ে চুমু দিয়ে পোপের আকুতি ‘যুদ্ধ সবকিছু ধ্বংস করে… শান্তিতে অটুট থাকো’


দ. সুদানি নেতাদের পায়ে চুমু দিয়ে পোপের আকুতি ‘যুদ্ধ সবকিছু ধ্বংস করে… শান্তিতে অটুট থাকো’

আমাদের নতুন সময় : 13/04/2019

রাশিদ রিয়াজ : দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেন্ট সালভা কির সহ দেশটির কয়েকজন নেতা হতভম্ব হয়ে গেলেন। তারা কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়লেন। বৃহস্পতিবার ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস তাদের সামনে অবনত মস্তকে উবু হয়ে পড়ে, তাদের পায়ে চুমু খাচ্ছেন। আকুতি জানাচ্ছেন, যুদ্ধ কোরো না, শান্তির পথে দৃঢ় থাক। কারণ যুদ্ধ সবকিছু তছনছ করে দেয়। এসময় পোপ বলেন, ‘মনে রেখ, যুদ্ধ সবকিছু কেড়ে নেয়।
এসময় দক্ষিণ সুদানের বিরোধী নেতাও সেখানে ছিলেন। দক্ষিণ সুদানের সরকার ও বিরোধী দলের মধ্যে সহবস্থান বজায় রাখতে পোপ এ আবেদন জানান। বলেন, তাদের মধ্যে যেন বিদ্যমান শান্তি অটুট থাকে। ভ্যাটিকানে পোপ ফ্রান্সিস দুদিনের আধ্যাত্মিক কর্মসূচি পালন শেষে দক্ষিণ সুদানের নেতাদের পোপ বলেন, আমি হৃদয়ের অভ্যন্তর থেকে আপনাদের শান্তির আহবান জানাচ্ছি। পবিত্র বাইবেল স্পর্শ করে তিনি তাদের শপথ নেন। দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেন্ট সালভা কির ও বিরোধীদলীয় নেতা রিক মাচারের হাত ধরে পোপ তার বুকে স্থাপন করেন। এবং বলেন, শান্তিতে অবস্থান বজায় রাখুন।
২০১১ সালে দক্ষিণ সুদান স্বাধীন হলেও গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ে এবং এ যুদ্ধে এখন পর্যন্ত অন্তত ৪ লাখ মানুষ মারা গেছে। লাখ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে। গত সেপ্টেম্বরে ইথিওপিয়ায় দক্ষিণ সুদানের নেতারা নিজেদের মধ্যে একটি শান্তি চুক্তি করতে সমর্থ হন। এরপর ভ্যাটিকানে পোপ তাদের আমন্ত্রণ জানান। পোপের বাসভবনে তাদের দুদিনের এক ব্যতিক্রমী আধ্যাত্মিক অনুশীলন হয়। এসময় পোপ তাদের পবিত্র বাইবেল উপহার দেন।
পোপ ফ্রান্সিস তাদের উদাত্ত আহবান জানিয়ে বলেন, আপনাদের মধ্যে যে বিরোধ রয়েছে, যুদ্ধময় পরিস্থিতি বিরাজ করছে তা অফিসের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখুন। দক্ষিণ সুদানের শীর্ষ কর্মকর্তারাও ভ্যাটিকানে উপস্থিত ছিলেন। পোপ তাদের বলেন, যুদ্ধবিরতির প্রতি একে অপরে শ্রদ্ধা জানান। ঐক্যবদ্ধ সরকার গঠন করুন। কিন্তু জনগণের সামনে একে অপরের হাত ধরে একাত্মতা বজায় রাখুন। এবং আপনাদের এ ঐক্যবদ্ধ ভূমিকায় দক্ষিণ সুদানের মানুষ শান্তির পথ খুঁজে পাবে এবং আপনারা জাতির পিতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবেন।
একটি ছোট কক্ষে দক্ষিণ সুদানের নেতা, শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তা ও বিরোধী নেতাদের মুখোমুখি বসেছিলেন পোপ। তাদের পোপ আরো বলেন, আপনাদের বিবেক ও দৃষ্টিভঙ্গী সবকিছু অবলোকন করছে। আপনাদের জনগণও অবলোকন করছে। এবং সকলের ইচ্ছা হচ্ছে দক্ষিণ সুদানে ন্যায়বিচার, সমঝোতা ও শান্তি প্রতিষ্ঠা করা। এজন্যে এক অভিন্ন পথ খুঁজে নেয়ার আহবান জানিয়ে পোপ বলেন, আর বিভক্ত হবেন না। অতীতের দ্বন্দ্বে জনগণ ক্লান্ত হয়ে পড়েছে। অনুসন্ধানের মধ্যে দিয়ে নিজেদের মতপার্থক্য দূর করার পথ অনুসরণ করুন। মনে রাখবেন যুদ্ধ সবকিছু ধংস করে।
ভ্যাটিকানে এ নাটকীয় ঘটনা ঘটল এমন এক সময়ে যখন সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশির তার ৩০ বছরের স্বৈরশাসনের অবসান ঘটিয়ে বৃহস্পতিবার পদত্যাগে বাধ্য হন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]