• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সশস্ত্র বাহিনীকে ব্যবহার বন্ধ করুন ভারতের প্রেসিডেন্টের প্রতি সাবেক সেনা কর্মকর্তারা


রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সশস্ত্র বাহিনীকে ব্যবহার বন্ধ করুন ভারতের প্রেসিডেন্টের প্রতি সাবেক সেনা কর্মকর্তারা

আমাদের নতুন সময় : 13/04/2019

ইমরুল শাহেদ : ভারতের সশস্ত্র বাহিনীর ১৫০ জন সাবেক শীর্ষ কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত একটি লিখিত আবেদন প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দের কাছে পাঠিয়েছেন। সেই লিখিত আবেদনে তারা বলেছেন, সশস্ত্র বাহিনীকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে বা রাজনৈতিক কর্মকা-ে টানা একটা বিপজ্জনক ও উদ্বেগের বিষয়। আবেদনটি ভারতের প্রথম দফা নির্বাচনের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্টের কাছে পাঠানো হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় সেনা অভিযানের প্রশংসা করে রাজনৈতিক নেতাদের কৃতিত্ব জাহির বা সেনা বাহিনীকে ‘মোদী জি কি সেনা’ বলাটা একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। এনডিটিভি

এই লিখিত আবেদনে স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে রয়েছেন তিন জন সাবেক সেনা প্রধান, চারজন সাবেক নৌ-প্রধান এবং সাবেক বিমান বাহিনী প্রধান এনসি সুরী। তিন জন সাবেক সেনা প্রধানের মধ্যে জেনারেল (অব:) এসএফ রদ্রিগুস, জেনারেল (অব:) শংকর রায় চৌধুরী এবং জেনারেল (অব:) দীপক কাপুর।

অবসর পাওয়া এসব কর্মকর্তারা লিখিত আবেদনটিতে উল্লেখ করেন, সম্প্রতি একটি নির্বাচনি জনসভায় উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সেনা বাহিনীকে ‘মোদী জি কি সেনা’ অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সেনা বলে উল্লেখ করেছেন। এজন্য নির্বাচন কমিশন তাকে তিরস্কার করেছে।

সেনা কর্মকর্তারা উল্লেখ করেন, দলীয় কর্মীরা সেনা বাহিনীর পোশাক পোস্টারে ব্যবহার করছেন, সেনা সদস্যদের ছবির সঙ্গে নিজেদের ছবি ব্যবহার করছেন, বিশেষ করে ভারতীয় বিমান বাহিনীর উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের সঙ্গে। বর্তমানের বিমানটি ২৭ ফেব্রুয়ারি গুলি করে ভূপাতিত করার পর পাকিস্তানের হাতে তিনি তিন দিন বন্দী ছিলেন।

গত মার্চ মাসে দিল্লির বিজেপি প্রধান মনোজ তিওয়ারি সেনা বাহিনীর একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বিতর্কের অবতারণা করেন। রাজনীতিতে যোগ দেওয়া অভিনেত্রী উর্মিলা মাতোন্ডকার মুম্বাইয়ের একটি নির্বাচনি পথসভায় বর্তমান-এর ছবিটি ব্যবহার করেছেন।

কর্মকর্তারা বলেছেন, নির্বাচন কমিশন তিরস্কার করা সত্ত্বেও রাজনীতিকদের আচরণে কোনো পরিবর্তন আসেনি। প্রেসিডেন্টের কাছে পাঠানো এই লিখিত আবেদনে কর্মকর্তারা নিশ্চয়তা চেয়েছেন, যাতে সেনা বাহিনীকে বিতর্কের উর্ধ্বে ও রাজনীতিবিমুখ রাখা হয় এবং সকল রাজনৈতিক দলকে নির্দেশ দেওয়া হয় রাজনীতির খাতিরে তারা যেন সেনা পোশাক বা কোনো প্রতীক ব্যবহার থেকে বিরত থাকেন।

জেনারেল (অব:) শংকর রায় চৌধুরী এনডিটিভিকে বলেছেন, ‘আমরা সম্পূর্ণভাবে রাজনীতি নিরপেক্ষ। আমরা শুধু সরকারের কাছেই জবাবদিহি করতে বাধ্য। আমরা প্রতিরক্ষা বাহিনীকে সাংঘর্ষিক করে তুরতে চাই না। লিখিত আবেদনটি শুধু রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য, তা সেনা বাহিনীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। তারা তাদের কাজ করছে।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]