নগরীতে চলছে সিটি করপোরেশন ও রাজউকের ১০টি মেগা প্রজেক্টের কাজ

আমাদের নতুন সময় : 14/04/2019

সুজিৎ নন্দী : রাজধানীর উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বন্ধ থাকা মেগা প্রজেক্টের কাজ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আওতায় ২৬টি এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতায় ৩১টি পার্ক, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ‘জল-সবুজের ঢাকা’ প্রকল্প, ৫ হাজার কোটি টাকা গুলশান-বনানী-বারিধারা লেক উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে।
২০১৭ সালে শুরু হওয়া নগরীর ৫৭টি পার্ক ও খেলার মাঠ নির্মাণের কাজ শেষ পর্যায়ে। এ বছরই কাজ শেষ হবে এবং পার্ক ও মাঠগুলো খুলে দেয়া হবে বলে এ প্রতিবেদককে জানান, ঢাকা দক্ষিনের মেয়র সাঈদ খোকন।
সূত্র জানায়, ‘ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্থ সড়ক অবকাঠামো উন্নয়নসহ নর্দামা ও ফুটপাত নির্মাণ’ ১ হাজার ২৫ কোটি ৮৬ লাখ ৫৪ হাজার টাকার কাজ শেষ পর্যায়ে। ২০১৬ সালের জুলাইয়ে শুরু হওয়া এ প্রকল্প সরকারের ৭১৮ কোটি ১০ লাখ ৫৮ হাজার টাকা এবং উত্তর সিটির নিজস্ব অর্থায়ন ৩০৭ কোটি ৭৫ লাখ ৯৬ লাখ টাকা। গত বছরের ডিসেম্বরে শেষ হবার কথা। কিন্তু এ পর্যন্ত ৯০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। এ বছর জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত তিনমাস বন্ধ থাকার পরে এমাসে আবারো পুরোদমে কাজ শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে উত্তরের পুরো রাস্তায় এলইডি লাইটের কাজ চলছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সঙ্গে নতুন যুক্ত হওয়া প্রথম ধাপে চারটি ইউনিয়ন উন্নয়নের শুরু হয়েছে। ৪৭৬ কোটি টাকার নতুন প্রকল্পের ৯৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। এদিকে গুলশান-বনানীতে ওয়াকওয়ে, লেক উন্নয়ন, ফ্লাইওভার, পার্ক, নৌপথ আর সেতু নির্মাণ করতে যাচ্ছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। গুলশান-বনানী- বারিধারা লেক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় নতুন করে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হচ্ছে। এটি বাস্তবায়িত হলে রাজধানীতে নতুন করে যুক্ত হবে তিনটি পার্ক, লেকপাড়ে ৫ কিলোমিটার রাস্তা, হাঁটার রাস্তা ৬ কিলোমিটার, ১৫ কিলোমিটারের বেশি নৌপথ, প্রায় ৩ কিলোমিটার ফ্লাইওভার, ২টি ওভারপাস, ৯টি সেতু আর দুটি ওভারপাস। ইতোমধ্যে ২০১০ সালে তৈরি হওয়া প্রকল্পটি সম্প্রসারণ করা হয়েছে। প্রকল্পের ৭০ শতাংশ এলাকা গুলশান লেকে পড়েছে। বনানী, বারিধারা ও গুলশান সোসাইটি লেকের পরিচ্ছন্ন কার্যক্রমে যুক্ত আছে। এটি বাস্তবায়ন করবে রাজউক এবং পরামর্শকের দায়িত্বে আছে বুয়েট।
প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, লেকের প্রায় ৩শ’ একর উন্নয়নে ২০১০ সালের জুনে প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়। শুরুতে ৪১০ কোটি টাকা ব্যয়ে এটি হাতে নেয়া হয়। পরবর্তিতে প্রকল্পের সঙ্গে পার্ক, ওয়াকওয়েসহ বিভিন্ন বিষয় যুক্ত হয়। বর্তমানে এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪ হাজার ৮৮৮ কোটি টাকা। এ ব্যাপারে রাজউকের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান বলেন, সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২২ সালের ডিসেম্বরে এটি বাস্তবায়িত হবে। গুলশান-বনানী-বারিধারা লেক হাতিরঝিলের চেয়ে আরও বেশি সুন্দর হবে। রাজধানীবাসী এর সুফল পাবে। বনানী, বারিধারা ও গুলশান সোসাইটি এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত থাকবে।
দ্বিতীয় ধাপে ‘ডিএসসিসি আওতাধীন নবসুংযুক্ত নাসিরাবাদ, দক্ষিণগাঁও, ডেমরা ও মান্ডা এলাকার সড়ক অবকাঠামো ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন’ কাজ শুরু হয়েছে। প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, ৪৭৬ কোটি ২৮ লাখ ৯৬ হাজার টাকা ব্যায়ের প্রকল্পে ৪০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। প্রায় ৬৬ কিলোমিটার নতুন রাস্তা নির্মাণ করা হবে। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]