ইকুয়েডর দূতাবাসকে গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করেছেন অ্যাসাঞ্জ!

আমাদের নতুন সময় : 16/04/2019

সান্দ্রা নন্দিনী : ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট লেনিন মরেনো অভিযোগ করেছেন, উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসেঞ্জ তার দেশের লন্ডন দূতাবাসকে গুপ্তচরবৃত্তির ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করেছেন। রোববার গার্ডিয়ান’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, কোন রাষ্ট্রই অ্যাসাঞ্জের আশ্রয়প্রার্থনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে প্রভাবিত করেনি। বিবিসি
২০১৭ সালে দায়িত্বভার গ্রহণকারী মরেনো বলেন, ‘দূতাবাসের ভেতরে অ্যাসাঞ্জ দীর্ঘ ৭ বছর বাস করেছেন। এটি আর হতে দেওয়া যায় না। কেননা, আমরা একটি স্বার্বভৌম রাষ্ট্র এবং সকল দেশের আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই আমরা নিশ্চই আমাদের ঘরকে গুপ্তচরবৃত্তির আখড়া হিসেবে ব্যবহার করতে দিতে পারি না। তবে, বর্তমান সিদ্ধান্তের পেছনে আর কোন দেশই কলকাঠি নাড়ছে না।’
এর আগে, অ্যাসাঞ্জের আইনজীবী ইকুয়েডরের বিরুদ্ধে অ্যাসাঞ্জের নামে ভিত্তিহীন অভিযোগ আনা হয়েছে বলে দাবি করেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]