• প্রচ্ছদ » গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ » অস্কারজয়ী লেডি গাগা দু’বার ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন, তার কথা, যদি তুমি স্বপ্ন দেখো তবে তুমি যুদ্ধ করো, জিতবে একদিন


অস্কারজয়ী লেডি গাগা দু’বার ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন, তার কথা, যদি তুমি স্বপ্ন দেখো তবে তুমি যুদ্ধ করো, জিতবে একদিন

আমাদের নতুন সময় : 17/04/2019

দেবদুলাল মুন্না : লেডি গাগা মানেই তার ‘ শ্যালো’ গান লেডি গাগা মানেই ২০০ কোটি টাকা মূল্যের হিরার নেকলেস পরে ৯১তম অস্কারের লালগালিচায় দ্যুতি ছড়ানোর গল্প। ‘আ স্টার ইজ বর্ন’ নামের একটা চলচ্চিত্র দিয়ে গায়িকা থেকে রীতিমতো হলিউডের নামী নায়িকাও হয়েছেন তিনি। কিন্তু তার শৈশব কৈশোর মোটেই সুখকর নয়। মাত্র ১৬ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হন অস্কারজয়ী এই শিল্পী। এরপর মারাত্মক হতাশায় ডুবে যান। এভাবে কেটে যায় সাত বছর। এরপর আবারও তিনি আবারও ধর্ষিত হন দ্বিতীয়বার। তখন তাকে সবাই বলত ‘খারাপ মেয়ে।’ তার এক প্রেমিকও ছিলেন যিনি লেডি গাগাকে বলেছিলেন, ‘তুমি জীবনে কখনো সফল হবে না। কখনো একটা হিট গান দিতে পারবে না। কখনোই গ্র্যামির জন্য মনোনীত হবে না।’ সেই দিন গাগা তাঁকে বলেছিলেন, ‘এমন একটা সময় আসবে, যখন তুমি আমি একসঙ্গে থাকব না। সেদিন শহরের প্রতিটি রেস্তোরা আর কফিশপে আমার গান বাজবে, আমার ছবিতে ছেয়ে যাবে প্রতিটি বিলবোর্ড আর দেয়াল!’ ঘটনা হলো সত্যি। লেডি গাগা আজ বিখ্যাত। আর তার সাবেক প্রেমিক একটা ছোট শহরের শিক্ষকই রয়ে গেছেন। লেডি গাগা সেসব দিনের কথা সবাই পেয়েছে তাঁর গানে আর বক্তৃতায়। বললেন, ‘আমার মনে হয় সেসব মারাত্মক হতাশা, ভয়ংকর দুশ্চিন্তা আর ভীতসন্ত্রস্ত নির্ঘুম রাতগুলো আমার জীবনটা বদলে দিয়েছে। আমি নিয়মিত হতাশা আর অবসাদ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ওষুধ খেতাম। একগাদা ঘুমের ওষুধ না খেয়ে দুই ঘণ্টা ঘুমাতে পারিনি। ডাক্তার বলেছিল, এটা মোটেই ঠিক হচ্ছে না। এই অসুস্থতা গুরুতর স্নায়ুর সমস্যায় রূপ নেয়। তা আমার মানসিক অস্থিরতা ও ব্যক্তিত্বের সংকট তৈরি করে। নিজেকে রক্ষা করার জন্য তখন আয়ুর্বেদিক আর মেডিটেশনের দিকে ঝুঁকে পড়ি। মাঝেমধ্যে গভীরভাবে প্রার্থনায় মগ্ন থেকেছি। এরপর হঠাৎ একদিন নিজেকে জিজ্ঞেস করলাম, আমি কেন অসুখী? মন জবাব দিল, আমি “না” বলতে পারি না। আমি সারা দিন অমানুষিক পরিশ্রম করি আর অর্থ ও খ্যাতির পেছনে ছুটছি। দিন শেষে আমার নিজেকে একটা “অর্থ উৎপাদনের যন্ত্র” ছাড়া কিছুই মনে হয় না। পরদিন থেকে আমি তালিকা তৈরি করি। যে কাজগুলো আমার হৃদয় করতে চায় না, সেগুলোকে “না” বলতে শুরু করি। দেখলাম, দিন শেষে আমি বেশ আনন্দ অনুভব করছি।’ লেডি গাগার মতে, ‘বিজয়ী হওয়া গুরুত্বপূর্ণ নয়। গুরুত্বপূর্ণ হলো কখনো হাল ছেড়ে না দেওয়া। যদি তুমি স্বপ্ন দেখো, তাহলে সেই স্বপ্নের জন্য যুদ্ধ করো।জিতবে একদিন অবশ্যই।’
লেডি গাগা’র এ বক্তৃতার ভিডিওটি এখন ইউটিউবে সবচেয়ে রেকর্ডভঙ্গকারী। ২৯ কোটি ভিউয়ার্স এ সপ্তাহের ভেতর দেখেছেন এ ভিডিওটি।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]