পরিস্থিতি মোকাবেলায় সর্তক বিএনপি২০ দলীয় জোটের পর এবার সংকটে ঐক্যফ্রন্ট

আমাদের নতুন সময় : 10/05/2019

শাহানুজ্জামান টিটু : একাদশ নির্বাচনের পর সরকার বিরোধী শিবিরে হতাশা গ্রাস করেছে। যা ছিলো ভেতরে এখন তা প্রকাশ্যে। নির্বাচনে পরাজয়ের প্রধান কারণ হিসেবে ২০ দলীয় জোটের দলগুলোর সন্দেহ ড. কামাল হোসেনের ভূমিকা নিয়ে। এবার সেই আগুনে ঘি ঢেলে তা বাড়িয়ে দিলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। তিনিও এবার সমালোচনায় ভাসালেন ফ্রন্টের শীর্ষনেতা ড. কামাল হোসেনকে। বললেন, ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করার পরে গণফোরামের সুলতান মনসুর শপথ নিলে তাকে বহিষ্কার করা হয়। মোকাব্বির খান শপথ নিলে ড. কামাল হোসেন তাকে গেট আউট বলেন। পরে দেখা গেলো গণফোরামের বিশেষ কাউন্সিলে মোকাব্বির খান উপস্থিত। এসব নিয়ে মানুষের মধ্য বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। মানুষ এসব বিষয়ে জানতে চাইলে আমরা জবাব দিতে পারি না। ফ্রন্টের বাকি দলগুলো করণীয় নির্ধারণে ব্যস্ত।

প্রায় একই ধরনের অভিযোগ ২০ দলীয় জোটের শরীকদের। বিএনপির জন্য কিছুটা হলেও স্বস্তির যে তার দীর্ঘদিনের পুরানো মিত্র অন্যতম শরীক এলডিপি, কল্যাণ পার্টি, ভাসানী ন্যাপসহ বাকিদলগুলো জোট ছাড়বে না বলে আশ্বস্ত করেছে।

জানা গেছে, বিজেপি চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিভ পার্থকে জোটে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য তার সঙ্গে আলোচনা করেছেন বিএনপির একাধিক নেতা। এছাড়া জোটের বৈঠক ডাকা হচ্ছে শিগগিরই। এর আগে আগামী শনিবার রাতে সার্বিক বিষয়ে পর্যালোচনা করতে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বসছে দলের নীতিনির্ধারকরা। বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান। বৈঠকে দলের শৃঙ্খলা ফেরানো ও জোটের বৈঠকের বিষয় নিয়ে নেতারা আলোচনা করেন। কাদের সিদ্দিকীর ঐক্যফ্রন্ট ছাড়ার ঘোষণায় বিচলিত নন গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী। তিনি মনে করেন, সরকার ও বিরোধী দলে সর্বত্রই চলছে অস্থিরতা। এর বাইরে কোনো রাজনৈতিক দল নেই। কাদের সিদ্দিকী যে মন্তব্য করেছেন, এ বিষয়ে এখন কোনো কথা বলছি না। তিনি তার কথা বলেছেন। আমরা এক জায়গায় বসে কথা বললে সব কিছু নিরসন হয়ে যাবে।

এবিষয়ে বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা এই বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]