রূপকথা লেখা হলো না আয়াক্সের, উরা বীরত্বে প্রথমবার ফাইনালে টটেনহ্যাম

আমাদের নতুন সময় : 10/05/2019

আক্তারুজ্জামান : একের পর এক গল্প লিখতে লিখতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পথ পাড়ি দিচ্ছিল ডাচ ক্লাব আয়াক্স। এমনকি ২৩ বছর পর ফাইনালে ওঠার রূপকথাও সাজিয়েছিল তারা। কিন্তু ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম তাদের রূপকথাকে পূর্ণ হওয়ার আগেই থামিয়ে দিলো। আসলে টটেনহ্যাম বললে ভুল হবে, মূলত ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লুকাস মউরার হ্যাটট্রিক থামিয়ে দিয়েছে আয়াক্সকে। প্রথম লেগে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেও ঘরের মাঠে ৩-২ ব্যবধানে হেরে অ্যাওয়ে গোলের ফাঁদে পড়ে সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হলো নেরেস, ডি লিট ও হাকিম জায়িচদের। অন্যদিকে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে নিজেদের নাম লেখালো টটেনহ্যাম।

এর আগের রাতেই ইউরোপের সর্বোচ্চ লিগে লিভারপুলের কাছে ধোঁকা খেয়ে বিদায় নিয়েছে মেসি-সুয়ারেজদের শক্তিশালী বার্সেলোনা। এর পরের রাতেই লিভারপুলের প্রতিপক্ষ বাছাইয়ের লড়াইয়ে এগিয়ে থেকেও হারতে হয়েছে আয়াক্সকে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিতে প্রথম লেগে ঘরের মাঠে ১-০ গোলে হেরেছিল টটেনহ্যাম। দ্বিতীয় লেগে ছিলেন না দলের প্রাণ ভোমরা হ্যারি কেন। ফলে ঘরের মাঠে সুবিধা নেওয়ার চেষ্টাই ছিল আয়াক্স। কিন্তু কি থেকে যে কি হয়ে গেলো সেটা তারা বুঝতেই পারলো না। অ্যাওয়ে গোলের সুবিধা নিয়ে ফাইনালে উঠেছে ইংলিশ ক্লাবটি। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন হয় ৩-৩। আয়াক্সের মাঠে বেশি গোল দেওয়ার সুবিধা নিয়ে টটেনহ্যাম ফাইনালে।

বুধবার রাতে অ্যামস্টারডাম অ্যারেনায় দারুণ শুরু করেছিল স্বাগতিকরা। ম্যাচের পঞ্চম মিনিটেই ডি লিটের গোলে এগিয়ে যায় আয়াক্স। এরপর ৩৫ মিনিটের মাথায় ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডাচ মিডফিল্ডার হাকিম জায়িচ। ততক্ষণে স্বাগতিক শিবিরে বইছে ফাইনালের টিকিট কাটার উল্লাস। কেননা প্রথমার্ধেই ২টি গোল দেওয়ায় দুই লেগে তখন ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে দ্য সনস অব গডস বাহিনী।

১৯৯৫ মৌসুমের পর আবারও শিরোপাস্বপ্ন দেখতে দেখতে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামে এরিক টেন হ্যাগের শিষ্যরা। কিন্তু তখনও সিনেমার অনেক ক্লাইম্যাক্স বাকি। নেপোলিয়ন বোনাপার্টের রূপে হাজির হয়ে টটেনহ্যামকে জেতানোর দায়িত্ব কাঁধে নেন এক লুকাস মউরা। তার কাছেই হোঁচট খেতে হয় আয়াক্সকে। এই হ্যাটট্রিকে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ জিতে ইতিহাস লেখে ইংলিশ ক্লাবটি। ম্যাচের ৫৫, ৫৯ আর ৯৬ মিনিটের মাথায় তিন-তিনটি গোল করেন মউরা। নিজেদের ক্লাব ইতিহাসে প্রথমবারের মতো টটেনহ্যাম পৌঁছে যায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে।

আগামী ১ জুন ফাইনালে টটেনহ্যামের প্রতিপক্ষ গতবারের ফাইনালিস্ট লিভারপুল। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ান্দা মেত্রোপোলিতানোতে শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে দেখা যাবে ‘অল ইংলিশ’ ফাইনাল। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]