ঐক্যফ্রন্টে টানাপোড়েনে স্বস্তিতে আওয়ামী লীগ

আমাদের নতুন সময় : 11/05/2019

সমীরণ রায় : বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে ভাঙনের সুর এবং টানাপোড়েনে রাজনৈতিকভাবে স্বস্তিতে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। এতে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিএনপি রাজনীতির মাঠে আরও দুর্বল হয়ে পড়বে। ঐক্যফ্রন্টের অনৈক্য জনগণের কাছে তুলে ধরার পাশাপাশি রাজনৈতিকভাবে আওয়ামী লীগই বেশি লাভবান হবে বলে মনে করছেন দলের শীর্ষ নেতারা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপির নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হওয়ার সময়ই আওয়ামী লীগ থেকে বলা হয়েছিল, ঐক্যফ্রন্টের গঠন প্রক্রিয়াতেই ভাঙনের সুর। ফ্রন্ট ও বিএনপিও ভাঙনের মুখে পড়বে। বিএনপি ও ফ্রন্টের অবস্থা শুরু থেকেই লেজেগোবরে। সংসদ নির্বাচনের ৪ মাসের মাথায় ঐক্যফ্রন্টে ভাঙনের সুর দেখা দেওয়ায় আওয়ামী লীগের কথাই সত্য হলো। একই সঙ্গে বিরোধী রাজনীতিতে অস্থিরতার পরিপ্রেক্ষিতে কোনো ধরনের কৌশলী হতে হয় কী না, তাও খেয়াল রাখছে ক্ষমতাসীন দলটি।

জানা গেছে, একাদশ নির্বাচন সামনে রেখে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্ব গত বছরের ১৩ অক্টোবর বিএনপিসহ চারটি দল নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়। ফ্রন্টে আরও রয়েছে জেএসডি, নাগরিক ঐক্য ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ। এতে এই ফ্রন্টই আওয়ামী লীগের প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখা দেয়। একাদশ সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত ঐক্যফ্রন্টের দুই প্রার্থী ফ্রন্টের সিদ্ধান্ত না মেনেই শপথ নেওয়ায় একজনকে বহিষ্কার ও অন্যজনকে কারণ দর্শানোর চিঠি দেয় গণফোরাম। এ নিয়েও ফ্রন্টের শরিকদের মধ্যেও সৃষ্টি হয় দুরত্ব। পরে তাদের দলে টানা নিয়েও দেখা দেয়  বিভেদ।

বৃহস্পতিবার কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে অনেক অসঙ্গতি রয়েছে বলে উল্লেখ করে আল্টিমেটাম দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আর এক মাসের মধ্যে ঐক্যফন্টের অসঙ্গতি সুরাহা না হলে আগামী ৮ জুন ফ্রন্ট থেকে বেরিয়ে যাবে তার দল।

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি নেতৃত্বের ২০ দলীয় জোট থেকে অনেকেই পালাতে শুরু  করেছেন। ভবিষ্যতে আমরা আরো অনেককেই দেখতে পাব ২০ দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন। নেতৃত্বের পরিবর্তন ছাড়া বিএনপি ঘুরে দাঁড়িয়ে জনগণের দল হতে পারবে বলে ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি না।

উল্লেখ্য, বিএনপি শপথ না নেওয়ার বিষয়ে অবিচল থাকলেও শেষ পর্যন্ত ২০ দলের শরিকদের সঙ্গে কোনো আলোচনা ছাড়াই দলটির ৪জন শপথ নেন। এতে সন্দেহের দানা বাঁধে ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলে। জোট ছাড়ার ঘোষণা দেয় আন্দালিব রহমান পার্থের দল বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি)। বিএনপি না শোধরালে বিজেপির মতো জোটের অন্য শরিকরাও ২০ দল ছাড়ার হুমকি দিয়েছে ইতোমধ্যে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]