• প্রচ্ছদ » গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ » প্রমাণ ছাড়া যাদের মুক্তিযোদ্ধা সনদ দেয়া হয়েছে তাদের ভাতা স্থগিতের সিদ্ধান্ত সঠিক বলে মনে করেন ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন


প্রমাণ ছাড়া যাদের মুক্তিযোদ্ধা সনদ দেয়া হয়েছে তাদের ভাতা স্থগিতের সিদ্ধান্ত সঠিক বলে মনে করেন ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন

আমাদের নতুন সময় : 11/05/2019

আশিক রহমান : ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেছেন, তদন্ত ও প্রমাণ ছাড়া যাদের মুক্তিযোদ্ধা ভাতা দেওয়া হয়েছে তাদের সবার ভাতা স্থগিতের সিদ্ধান্ত সঠিক। এ সিদ্ধান্তকে আমি সমর্থন করি। কারণ কেউ মুক্তিযোদ্ধা না হয়েও যদি ভাতা নিতে থাকেন তাহলে এটা খারাপ উদাহরণ হবে। প্রশ্নবিদ্ধ হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সুযোগ-সুবিধা ও ভাতাপ্রদান প্রক্রিয়া।

তিনি আরও বলেন, দুটি কারণে মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক তালিকা হওয়া খুবই জরুরি। এক. একাত্তরে কারা দেশের স্বাধীনতার জন্য কাজ করেছেন, সেটা সশস্ত্র বা নিরস্ত্রভাবেও হতে পারে, তাদের শনাক্ত করা। প্রায় সবাই মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে থাকলেও কেউ কেউ বিপক্ষে ছিলেন। রাজাকাররা আমাদের স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছে। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাপ্য মর্যাদা নিশ্চিত করার স্বার্থেই তালিকাটি সঠিক হওয়া দরকার।  দুই. মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিয়ে থাকে রাষ্ট্র বা সরকার। সঠিক ব্যক্তি বা মুক্তিযোদ্ধাই যেন সরকারি সুযোগ-সুবিধা বা ভাতা পান সেটা নিশ্চিত করবে সঠিক মুক্তিযোদ্ধা তালিকা। ফলে সঠিক মুক্তিযোদ্ধা তালিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, এতোদিন কেন হয়নি, এজন্য দায়ী কে, সেখানে কার কতোটুকু দায়Ñ এ প্রশ্নগুলো আসছে। আমার মতে, মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক  তালিকাটি এখনো হয়নি সেটিই বড় সত্য। এটা নিরসন দরকার। এখানে কার দায়ভার কতোটুকু, কার কী ব্যর্থতার চেয়ে কাজটি করা জরুরি। বিএনপির কাছে সঠিক মুক্তিযোদ্ধার তালিকা প্রত্যাশা করতে পারি না। কারণ ব্যাখ্যার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। তবে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দেওয়া দল আওয়ামী লীগের দায় আছে। যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব এই তালিকা হওয়া উচিত বলেও মনে করেন এই ইতিহাসবিদ।

পুলিশের অপরাধ তদন্তবিভাগের (সিআইডি) প্রধান শেখ হিমায়েত হোসেন মিয়াকে অবসরে পাঠিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তিনি মিথ্যা তথ্য দিয়ে দীর্ঘদিন মুক্তিযোদ্ধার সম্মানি ভাতা নিয়েছেন। এসব অনিয়ম রোধ করতেই দরকার সঠিক মুক্তিযোদ্ধা তালিকা।

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]