• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » ১৯৮৪ সাল একটি ভয়াবহ ট্রাজেডির নাম, স্যাম পিত্রোদার বক্তব্য ঔদ্ধত্যপূর্ণ, মন্তব্য রাহুলের


১৯৮৪ সাল একটি ভয়াবহ ট্রাজেডির নাম, স্যাম পিত্রোদার বক্তব্য ঔদ্ধত্যপূর্ণ, মন্তব্য রাহুলের

আমাদের নতুন সময় : 11/05/2019

সান্দ্রা নন্দিনী : ১৯৮৪ সালে হওয়া শিখ-বিরোধী দাঙ্গা নিয়ে কংগ্রেস নেতা স্যাম পিত্রোদার বক্তব্যকে ‘অত্যন্ত ঔদ্ধত্যপূর্ণ’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে তারজন্য তাকে ক্ষমা চাইতে বলেছেন দলটির সভাপতি রাহুল গান্ধী। শুক্রবার এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে রাহুল একথা বলেন। এনডিটিভি

রাহুল বলেন, ‘আমি মনেকরি, স্যাম পিত্রোদা যা বলেছেন তা একবারেই অসত্য এবং একইসাথে ঔদ্ধত্যপূর্ণ। তাকে অবশ্যই এই মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে। ১৯৮৪ সালের দাঙ্গায় প্রায় ৩ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে, যা একটি ভয়াবহ ট্রাজেডি। এর বিচার হতেই হবে। এরসাথে জড়িত সকলের শাস্তি হতে হবে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এবং আমার মা সোনিয়া গান্ধী পর্যন্ত এ ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন। আমরা প্রত্যেকেই এবিষয়ে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছি। আমরা মনে করি যে, ১৯৮৪ সাল এমন এক ভয়াবহতার নাম যে দুর্ঘটনা আর কখনও ঘটা উচিৎ নয়।’

বৃহস্পতিবার ১৯৮৪ সালের দাঙ্গা নিয়ে আপত্তিজনক বক্তব্য দেন। পিত্রোদা বলেন, ‘যা হয়েছে, হয়েছে।’

পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘এধরনের মন্তব্যেই বোঝা যায় কংগ্রেসের চরিত্র ও মানসিকতা কেমন। তারা বহুবছর ভারতের ক্ষমতায় থাকলেও তাদের মনোভাব, চরিত্র, মানসিকতা সবকিছুই পিত্রোদার ওই তিনটি শব্দের মধ্যেই ফুটে উঠেছে।’

এদিকে, নিজের বিতর্কিত মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়ে এএনআই’কে পিত্রোদা বলেন, ‘আমার বক্তব্যকে সম্পূর্ণই ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমি বোঝাতে চেয়েছি, অতীতে যা হবার হয়ে গেছে। এখন আমাদের বিজেপি সরকারের বিভিন্ন কর্মকা- নিয়ে কথা বলার সময়। তবে, আমি আমার বক্তব্যের ভুলব্যাখ্যার জন্য দুঃখপ্রকাশ করছি।’  সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]