ডেনিম রিসাইক্লিং করে তাকলাগিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ

আমাদের নতুন সময় : 13/05/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : বিশ^জুড়েই পরিধেয় কাপড় ব্যবহার করার ফলে ফেলে দেওয়া হয়। এতে তুলা উৎপাদনের উপর বড় ধরণের চাপ পড়ে। এবং তুলা উৎপাদনে প্রতিবছর কোটি কোটি লিটার পানি ব্যবহৃত হয়। তবে এক্ষেত্রে বাংলাদেশ একটি টেকসই এবং অসাধারাণ কাজ করছে। ব্যবহৃত ডেনিম প্যান্টসহ পরিধেয় কাপড় রিসাইক্লিং করে নতুন কাপড় তৈরী হচ্ছে দেশটিতে। ফলে উৎপাদন খরচ যেমন কমছে, তেমনি পরিবেশেও হচ্ছে উপকৃত। ফাইবারটুফ্যাশন।

এরকজোড়া জিন্স প্যান্ট তৈরী করতে ৫ হাজার লিটারের মতো পানি খরচ হয়। এ ধরণের প্রকল্প তাই পানির অপচয় রোধ করছে বলে মন্তব্য করেছেন বোসা এর স্ট্র্যাটিজি এবং বিজনেস ডেভলপমেন্ট পরিচালক বেসিম ওজেক। নতুন করে ডেনিম তৈরীতে প্রয়োজনীয় শক্তির মাত্র এক চতুর্থাংশ ব্যয় হয় ডেনিম রিসাইক্লিং-এ। এতে খরচও কম হয়। বাংলাদেশে এই পুনরুৎপাদন পরিকল্পনা প্রথম হাতে নিয়েছিলো আম্বার গ্রুপ। এরপর অন্য পওতিষ্ঠানগুলোও এই পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এই বিষয়ে পাইওনিয়ার ডেনিম এর পরিচালক মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশকে বলা যেতে পারে দুইবার ডেনিম ব্যবহারের দিকপাল। আমরা এভাবে পরিবেশ ও অর্থ দুটাই বাচাচ্ছি।’

ব্যবহৃত পুরনো কাপড়কে রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় আবার ব্যবহার উপযোগী করা হয়। মাত্র মাস খানেক আগে এ ধরনের ডেনিমের উৎপাদনে এসেছেন তারা। প্রতি মাসে ২৮০ টন ডেনিম উৎপাদন করে পাইওনিয়ার ডেনিম। এইচএনএম, ওয়ালমার্ট, জারা জেসিপেনির মতো ব্র্যান্ড তাদের এসব পণ্যের রফতানি আদেশ দিচ্ছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]