‘মা’ দিবসে উপহার কেনায় আড়াই হাজারকোটি ডলার ব্যয় করেছেন আমেরিকানরা

আমাদের নতুন সময় : 13/05/2019

লিহান লিমা : প্রতিবছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার সারা বিশ্বজুড়ে পালন করা হয় মা দিবস। এ বছর মা দিবস পালনে মায়েদের জন্য উপহার কেনা বাবদ ৮৪ভাগ আমেরিকান ব্যয় করেছেন আড়াই হাজার কোটির বেশি মার্কিন ডলার। যা ২০১৮ সালে ছিলো ২৩ শ’ কোটি ডলার। ফক্স বিজনেস, সিএনএন

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল রিটেইল ফাউন্ডেশনের (এনআরএফ) মতে, এই পরিমাণ গত ১৬ বছরের সমীক্ষার ইতিহাসে রেকর্ড ভেঙ্গেছে। এনআরএফ জানায়, এ বছর প্রতিজন ব্যক্তি মা দিবস পালনের গড়ে ব্যয় করেছেন ১৯৬ ডলার, যা গত বছর ছিলো ১৮০ ডলার। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের তৃতীয় বৃহত্তম কেনাকাটার দিনটি এই মা দিবস।  অগাস্টার ফ্লাওয়ার এন্ড বোর্ডের মালিক ব্রেন্ট স্ল্যাগেল বলেন, ‘ভালবাসা দিবসে জনপ্রতি গড়ে তাদের বিক্রি ৭৫ ডলার, মা দিবসে সেটি ১২০ ডলার। তিনি বলেন, বছরের অন্য যে কোন দিনের চেয়ে মা দিবসে এটি ৪৫০শতাংশ বৃদ্ধি পায়।

১৯১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রে মা দিবসের স্বীকৃতি দেয়া হয়। মা দিবসের প্রতিষ্ঠাতা আনা জারভিস নিজের মায়ের কাজের স্বীকৃতি ও সম্মানের জন্য ‘মা দিবস’ চালু করতে লড়াই করেন, পরবর্তীতে তিনি নিজেই সারা জীবন এর বিরুদ্ধে কথা বলে গিয়েছেন। মায়ের জন্য একটুও সময় বের না করে কেবল কার্ড ধরিয়ে দেওয়া এবং বিভিন্ন কোম্পানির এই দিনটিকে নিয়ে মুনাফা অর্জনের চেষ্টা তাঁকে ব্যথিত করে। জারভিস প্রত্যক্ষ করেন মা দিবসের বাণিজ্যিকরণ, যা কিনা মায়েদের কঠোর পরিশ্রমের স্বীকৃতির বদলে ব্যস্ত ফুল, কার্ড, চকলেটের বাহারি সৌন্দর্য নিয়ে। ১৯২৩ সালে ফিলাডেলপিয়ায় এক রিটেইল কনফারেন্সে আনা বলেন, ‘আপনারা এই সুন্দর দিনটিকে লাভের বস্তুতে পরিণত করেছেন। মাতৃদিবসের দিনটি বোঝা, অপচয়জনক, ব্যয়বহুল উপহার দিবস, যা ক্রিসমাস ও অন্যান্য বিশেষ দিনের মতোই হয়ে উঠছে,যা আমাদের কাম্য নয়।’ আক্ষেপ করে আনা বলেন, ‘মা দিবসের সূচনা না হলেই ভালো হতো।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]