• প্রচ্ছদ » » উপুর্যুপরি বর্বর ঘটানাবলিতে মৃতপ্রায় মানুষ জেগে উঠছে দিকে-দিকে, বাবার হয়ে তর্জনী তুলুন, আপা


উপুর্যুপরি বর্বর ঘটানাবলিতে মৃতপ্রায় মানুষ জেগে উঠছে দিকে-দিকে, বাবার হয়ে তর্জনী তুলুন, আপা

আমাদের নতুন সময় : 14/05/2019

আবু হাসান শাহরিয়ার

এ চিঠি তখনি লেখা, যখন লেনিন বেঁচে ছিলো। অথবা মুজিব ছিলো ঘরে-ঘরে চর্যার টোটেম। কে আছে শোনেনি সেই রাখালের বজ্রচেরা বাঁশি? সে যদি তর্জনী তোলে, গোরস্থানও দুর্গ হয়ে ওঠে। আজও তার নাম শুনে শোষকের সিংহাসন কাঁপে। (আবু হাসান শাহরিয়ার/বালিকা আশ্রম)
মহান ওই বংশীবাদকের বড় মেয়ে শেখ হাসিনাকে আমি লেখায় ‘মুজিবকন্যা’ সম্বোধন করি। তার দলের নাম আওয়ামী লীগ। সেই দলের সভানেত্রী তিনি। দলের লোকজন ছাড়াও দলকানারা তাকে ‘নেত্রী’ বলে ডাকেন। আমি ডাকি ‘আপা’। ব্যক্তিগত পরিচয় সুবাদে আপার কাছ থেকে কখনো কোনো সুবিধা আদায় করিনি। তাই ছোট ভাই হিসেবে অন্য অনেকের চেয়ে আমার দাবি একটু বেশিই থাকে সব সময়। সামষ্টিক মঙ্গলার্থে।
সংযুক্ত ছবিগুলোয় যেমনটা দেখা যাচ্ছে, এক বিকেলে মুজিবকন্যা ঠিক তেমনভাবেই শিশু-কিশোরদের সঙ্গে আনন্দঘন কিছু সময় কাটিয়েছিলেন। দেশের দূর-দূরান্ত থেকে এসেছিলো ওই ‘সবুজ বাচ্চাগুলো’। মুজিবকন্যাকে একনজর দেখার আশায়। সে-দেখা তো হয়েছিলোই, মুজিবকন্যার হাত থেকে ক্রেস্ট-সনদ নিয়ে ঘরে ফিরতেও পেরেছিলো তারা। সঙ্গে একটি বই পেয়েছিলো ‘৩২ নম্বর চোখের আলোয় দেখেছিলেম’ নামে। বইটির লেখক ছিলো ওরা নিজেরাই। কবি শামসুর রাহমান ছিলেন বইয়ের উপদেষ্টা সম্পাদক। তিনিও ছিলেন সেই অনুষ্ঠানে। সম্পাদক ছিলাম আমি। মুজিবপ্রেমী আরও কিছু মানুষ যুক্ত ছিলেন সম্পাদনা আর ওই বৈকালিক আয়োজনের সঙ্গে। সেদিনের সেই শিশু-কিশোরদের সমবয়সীরা আজ যুবক-যুবতী। ওদের আজকের যৌবন আমাাদের ভরসা। ওদের ডাকেই শাহবাগের জাগরণ সারাদেশে গণজোয়ার সৃষ্টি করেছিলো। পহেলা বৈশাখে সংঘটিত পৈশাচিক নারী-লাঞ্ছনার প্রতিবাদে গত ২৭ বৈশাখ ওই অগ্রসর যৌবনই রাজপথে নেমে এসেছিলো প্রতিবাদ জানাতে। ‘সে যদি তর্জনী তোলে গোরস্থানও দুর্গ হয়ে ওঠে’।- উপুর্যুপরি বর্বর ঘটানাবলিতে মৃতপ্রায় মানুষ জেগে উঠছে দিকে-দিকে। বাবার হয়ে তর্জনী তুলুন, আপা। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]