অভিমান নিয়েই হলিউডের কিংবদন্তী অভিনেত্রী ডরিস ডে মারা গেছেন

আমাদের নতুন সময় : 15/05/2019

দেবদুলাল মুন্না : হলিউডের কিংবদন্তী অভিনেত্রী ডরিস ডে ৯৭ বছর বয়সে সোমবার মারা গেছেন। এক বিবৃতিতে ডরিস ডে অ্যানিম্যাল ফাউন্ডেশন জানায়, ডরিস সোমবার ক্যালিফোর্নিয়ার কারমেল ভ্যালিতে তার নিজ বাড়িতে মারা যান। ১৯৬০ সালে ‘পিলো টক’ চলচ্চিত্রের জন্য অস্কার মনোনয়ন পেলেও শেষ পর্যন্ত এ পুরস্কার তিনি পাননি। ফলে ভীষণ মানসিক আঘাত পান। ২০০৪ সালে ডরিসকে প্রেসিডেনশিয়াল মেডেল এবং ২০০৮ সালে গ্র্যামিতে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করা হয় ডরিসকে। সেই অনুষ্ঠানে ডরিস বলেছিলেন, ‘অস্কার কমিটি তাকে মনোনয়ন দিয়ে পুরস্কার না দিয়ে অপমান করেছিল।সে জন্য এ অভিমান তার থাকবে আজীবন।’ডরিসকে এ অভিমান নিয়েই মরতে হলো। সাবেক প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যানের সাথে তার জুটি হিসেবে দুটি মুভি দারুণ জনপ্রিয় হয়েছিল।

হলিউডে গুঞ্জনও রটেছিল রিগ্যানের সাথে তার গোপন প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তিনি শো-বিজ জগতে প্রবেশের সময় হতে  চেয়েছিলেন নৃত্যশিল্পী। কিন্তু ১২ বছর বয়সে তাদের গাড়িটি ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে পায়ে প্রচ- আঘাত পান। তবে কোনোভাবেই তিনি দমে যাওয়ার পাত্রী নন। এরপর থেকে গান শেখা শুরু করেন। প্রথমে তিনি রেডিওতে গান। পরে নাইটক্লাবে গাইতে শুরু করেন। এরপর অভিনয়ে সুযোগ পান। বিভিন্ন জনপ্রিয় ও বিখ্যাত চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সর্বকালের সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন ডরিস। ডরিস অভিনীত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে- ক্যালামিটি জেন, পিলো টক এবং কে সারা সারা- এর মতো বিভিন্ন বিখ্যাত ব্যবসাসফল মুভি। হলিউডের আরেক তারকা রক হাডসনের সঙ্গে জুটি বেঁধে ডরিস গত শতাব্দীর ৫০ ও ৬০’র দশকে উপহার দিয়েছেন একের পর এক বক্স অফিস হিট সিনেমা। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]