চীনের বাজার থেকে সর্বাধিক আয় করেছে অ্যাভেঞ্জার্স

আমাদের নতুন সময় : 15/05/2019

ইমরুল শাহেদ : মুক্তির তৃতীয় শুক্রবারের মধ্যেই মার্বেল স্টুডিওর ‘অ্যাভেঞ্জার্স : এন্ডগেম’ ছবিটি শুধু চীন থেকেই আয় করেছে ৫৯ কোটি ৭০ লাখ ডলার। তবে গত শুক্রবার ছবিটির বিক্রি ৮৮ শতাংশে নেমে এসেছে। চীনের বাজারকে বিশ্বের দ্বিতীয় চলচ্চিত্র বাজার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। হলিউডের বড় বড় ছবির জন্য এটা একটা গড় হিসাব। শুক্রবারেই ছবিটি আয় করেছে ৪১ লাখ ৫০ হাজার ডলার। ৬০ কোটি ডলার আয় করে ছবিটি ইতোমধ্যেই তৃতীয় স্থানে চলে এসেছে। এর আগে দি ওয়ান্ডারিং আর্থ চীনের বাজার থেকে আয় করেছে ৬৯ কোটি ৩০ লাখ ডলার। ২০১৭ সালে এই বাজার থেকে ওলফ ওয়রিয়র আয় করেছিল ৮৫ কোটি ৪০ লাখ ডলার। ফোর্বস

যাহোক জনচাহিদা না থাকায় পরে নেটফ্লিক্সকে দি ওয়ান্ডারিং আর্থ ছবিটি উত্তর আমেরিকা থেকে নামিয়ে ফেলতে হয়েছে। ঘটনাটি দুঃখজনক হলেও উত্তর আমেরিকা থেকে ছবিটি আয় করেছে ৫৮ লাখ ডলার। সে অর্থে ছবিটির জন্য চীনের বাজার অনেক ভালো। কিন্তু নেটফ্লিক্স ছবিটি ব্যানার রিলিজ বলে মনে করছে না। তবে বিশ্ব বাজার থেকে ছবিটি ৬৯ কোটি ৯০ লাখ ডলার আয় করেছে। দুই সপ্তাহ ৫ দিনে বিদেশী বাজার থেকে অ্যাভেঞ্জার্স : এন্ডগেম আয় করেছে ১৬৭ কোটি ২০ লাখ এবং সব মিলিয়ে ছবিটির আয় হয়েছে ২৩৩ কোটি ২০ লাখ ডলার। ছবিটি ২৫৪ কোটি ৩০ লাখ ডলার আয়ের মধ্য দিয়ে বিশ্ব বাজারে ইতি টানবে। কিন্তু অ্যাভেঞ্জার্স : এন্ডগেম এভাটার ছবির ব্যবসাকে অতিক্রম করতে পারেনি। এভাটার ব্যবসা করেছে ২৭০ কোটি ডলার। এজন্য হয়তো সময় লাগবে, তা প্রত্যাশার চাইতে একটু বেশি। সম্পাদনা : ইকবাল খান॥




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]