বিবাহিত হয়েও কমিটিতে যারা

আমাদের নতুন সময় : 15/05/2019

সমীরণ রায় ও লিয়ন মীর : আংশিক কমিটি গঠনের দীর্ঘ ১০ মাসের মাথায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে বিক্ষোভ-মিছিল করেছেন পদবঞ্চিতরা।

অনেকেই বিবাহিত বলে জানান তারা। পদবঞ্চিতরা যাদের নাম জানিয়েছেন তারা হলেনÑকেন্দ্রীয় কমিটিতে সহসভাপতি পদ পাওয়া সোহানী তিথি, সাংস্কৃতিবিষয়ক উপসম্পাদক পদ পাওয়া আফরিন সুলতানা লাবণী, উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক পদ পাওয়া রুশী চৌধুরী, সহ-সম্পাদক পদ পাওয়া আনজুমান আরা আনু ও সামিহা সরকার সুইটি। এছাড়াও সহসভাপতি ইশাত কাসফিয়া ইরাও বিবাহিত বলে অভিযোগ করছেন কেউ কেউ।

এ বিষয়ে শামসুন্নাহার হলের সাধারণ সম্পাদক জেয়াসমিন শান্তা ফেসবুকে লেখেন, নারীদের বিবাহিত হওয়া ও আন্ডারগ্রাউন্ড প্রটোকল দেয়া বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটিতে বড় পোস্ট পাওয়ার মূলমন্ত্র।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মধুর ক্যান্টিন থেকে গত সোমবার সন্ধ্যায় এক বিক্ষোভ মিছিল বের করেন ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদবঞ্চিতরা। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে দিয়ে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) অবস্থিত সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন তারা। এসময় পদবঞ্চিতরা অভিযোগ করেন, বিবাহিত হলেও অনেককে পদ দিয়েছেন রেজাওনুল হক শোভন-গোলাম রাব্বানী। পদ পাওয়া ওইসব নেতাকর্মীদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে সুবিধা আদায় করে নিয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ৫-এর গ ধারা অনুযায়ী বিবাহিত ব্যক্তি ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাবেন না। গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে এসব নেতাকর্মীদের কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান দেয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিবাদ করেছেন পদবঞ্চিতরা। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]