মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সঙ্গে আর্থিক সম্পর্ক ছিন্নের আহ্বান জাতিসংঘ প্যানেলের

আমাদের নতুন সময় : 15/05/2019

লিহান লিমা : মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সঙ্গে সব প্রকার লেনদেন বন্ধ ও সমর্থন তুলে নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের তদন্তকারী দল। মঙ্গলবার জাতিসংঘ প্যানেল সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নিধনযজ্ঞের জন্য মিয়ানমার সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ জেনারেলদের বিচারের মুখোমুখি করারও আহ্বান জানায়। রয়টার্স, ইয়াহু নিউজ।

জাতিসংঘের তদন্তকারী দল নির্দিষ্ট কোন দেশের কথা উল্লেখ করেন নি। রয়টার্স জানিয়েছে, মিয়ানমার সেনাবাহিনী চীন, রাশিয়াসহ অন্যান্যদের কাছ থেকে অস্ত্র ক্রয় করে থাকে। ইতোমধ্যে অনেক পশ্চিমা দেশ মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে দেশটির সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ প্রদান প্রকল্প বাতিল করেছে ও অস্ত্র বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

জাতিসংঘের প্রতিবেদনে সুপারিশকৃত সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে তদন্তের বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করেছে মিয়ানমার। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল তুন তুন নেয়ি রয়টার্সকে বলেন, ‘আমাদের দেশ স্বাধীন, আমরা নিজেদের কোন বিষয়ে হস্তক্ষেপ মেনে নেব না।’

এদিকে জাতিসংঘ তদন্তকারী দল বলছেন, তারা এখনো রাখাইন ও চীন প্রদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের খবর পাচ্ছেন।

২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হত্যা, ধর্ষণ ও নিপীড়নের শিকার হয়ে সাড়ে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। জাতিসংঘ এটিকে ‘জাতিগত নিধন’ ও ‘গণহত্যা’ বলে আখ্যায়িত করেছে।

অস্ট্রেলিয়ার মানবাধিকার বিষয়ক আইনজীবী ও প্যানেলের সদস্য ক্রিস্টোপার সিদোতি বলেন, ‘শরণার্থীদের ফিরিয়ে আনা বা সংকট সমাধানের জন্য মিয়ানমারের চেষ্টার কোন লক্ষণ বা প্রমাণ নেই।’ মিয়ানমার জাতিসংঘ কর্মকর্তাদেরও রাখাইনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। সিদোতি বলেন, ‘অতীতের এবং বর্তমানের সহিংসতার প্রেক্ষাপতে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে সব ধরনের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে। সহিংসতা কমানোর জন্য অর্থসহ অন্যান্য সহায়তা প্রদান বন্ধ সহ ক্রমাগত চাপ প্রয়োগ করে যেতে হবে।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]