মানুষের জীবন নিয়ে ছিনি-মিনি খেলাযাবে না, ভেজাল দুধের শুনানিতে হাইকোর্ট

আমাদের নতুন সময় : 16/05/2019

নূর মোহাম্মদ : ভেজাল মেশানোদের সতর্ক করে হাইকোর্ট আরো বলেছেন, নিরাপদ খাদ্যের বিষয়ে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। সে যেই হউক তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিরাপদ খাদ্য মানুষের মৌলিক অধিকার। ভবিষ্যত প্রজন্মের স্বাস্থ্য ঠিক না হলে জাতি গঠন হবে কিভাবে এমন প্রশ্নও তোলেন আদালত।

দুধ ও দইয়ে রাসায়নিক পাওয়া সংক্রান্ত আবেদনের শুনানিতে গতকাল বুধবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের বেঞ্চ এ সতর্কবাণী দেন। কোন কোন কোম্পানির দুধ ও দইয়ে ভেজাল বা রাসায়নিক দ্রব্য পাওয়া গেছে এবং কারা এর সঙ্গে জড়িতদের নাম-ঠিকানা দাখিলের জন্য গতকাল দিন ধার্য ছিল। তবে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ তা দাখিল না করে সময় আবেদন করে। পরে তাদেরকে ২৩ জুন পর্যন্ত সময় দেন আদালত।

এর আগে বাজার থেকে সংগৃহীত কাঁচা তরল দুধের ৯৬ নমুনার মধ্যে ৯৩ টিতেই সীসা, অ্যান্টিবায়েটিক অনুজীব পাওয়া গেছে বলে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। পরে কোন কোন কোম্পানি দুধে এই ভেজাল বা রাসায়নিক দ্রব্য মেশানোর সঙ্গে জড়িত তাদের পরিচয় জানাতে নির্দেশ দেন আদালত।

শুনানিতে বিএসটিআই’র আইনজীবী আদালতেকে বলেন, যে প্রক্রিয়ায় দুধের নমুনা সংগ্রহ করেছিলো ফুড সেফটি ল্যাবরেটরি সেটি সঠিক হয়নি। পরে এ রিপোর্টের যথর্থতা যাচাইয়ে ন্যাশানাল ফুড সেফটি ল্যাবরেটরির প্রধান প্রফেসর শাহনিলা ফেরদৌসীকে তলব করেন আদালত। তাকে আগামী ২১ মে সকাল সাড়ে ১০ টায় হাজির হয়ে তার রিপোর্টটি জমা দিতে বলা হয়েছে।  এছাড়া নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও বিএসটিআইকে ক্ষতিকারক দুধ ও দইয়ের  প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের নামসহ তাদের গৃহীত কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]