• প্রচ্ছদ » বিনোদন » সর্বকালের অন্যতম সেরা চলচ্চিত্রকার কেনজি মিজোগুচির জন্মদিন আজ


সর্বকালের অন্যতম সেরা চলচ্চিত্রকার কেনজি মিজোগুচির জন্মদিন আজ

আমাদের নতুন সময় : 16/05/2019

বাবলু ভট্টাচার্য : ১৯২৩ থেকে ১৯৫৬, ৩৩ বছরে ৮৬টি চলচ্চিত্র নির্মাণ  তিনি। মাত্র ৫৮ বছর বয়সে লিউকেমিয়ায় মারা না গেলে নিশ্চয়ই আমরা আরও অনেক মাস্টারপিস পেতাম তাঁর কাছ থেকে। তিনি কেনজি মিজগুচি। বিশ্ব চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় বিপ্লবটি ঘটেছিলো চল্লিশ ও পঞ্চাশের দশকের ফ্রান্সে, তবে সেটা ছিলো মূলত চলচ্চিত্র সমালোচনার বিপ্লব। মিজোগুচিকে বিশ্ব দরবারে উপযুক্ত সম্মানের আসনে প্রতিষ্ঠিত করার কৃতিত্ব ক্যাইয়ে দ্যু সিনেমার লেখকদের যাদের মধ্যে ছিলেন পরবর্তী সময়ে বিখ্যাত চলচ্চিত্রকার বনে যাওয়াা ফ্রঁসোয়া ত্রুফো, জাক রিভেত, জঁ-লুক গোদার, এরিক রোমারসহ আরও অনেকে।

এই লেখকেরা মিজোগুচিকে কেবল জাপানের নয় বরং সর্বকালের অন্যতম সেরা চলচ্চিত্রকার মনে করতেন। ইউরোপে মিজোগুচির সবচেয়ে বড় সম্মাননা ছিলো ১৯৫২, ৫৩ এবং ৫৪ এই তিন বছরই যথাক্রমে ‘দ্য লাইফ অফ ওহারু’, ‘উগেতসু’ এবং ‘সানশো দ্য বেইলিফ’ সিনেমার জন্য ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে লেওনে দারজেন্তো তথা সিলভার লায়ন জিতে নেয়া।

১৯৫৬ সালে আকস্মিক মৃত্যুতে কেন তাঁর খ্যাতি সাময়িকভাবে কমে গিয়েছিলো তা বোঝা কষ্টকর। একটা কারণ হতে পারে, ওজু ও কুরোসাওয়ার মতো তাঁর সিনেমাগুলোকে কোনো নির্দিষ্ট জঁরায় ফেলা যেতো না। সামুরাই বা শোমিনগেকি (মধ্যবিত্ত সাধারণের জীবন নিয়ে) সিনেমা তিনি খুব একটা নির্মাণ করেননি। ফরাসিদের প্রাথমিক অত্যুৎসাহেও ক্ষণিকের জন্য ভাটা পড়েছিলো কোনো কারণে। কিন্তু বর্তমানে আবার মিজোগুচি সচেতনতার জন্ম হচ্ছে। কেনজি মিজোগুচি ১৮৯৮ সালের ১৬ মে জাপানের টোকিওর হোঙ্গো শহরে জন্মগ্রহণ করেন।

লেখক : চলচ্চিত্র গবেষক ও সাংস্কৃতিক কর্মী




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]