• প্রচ্ছদ » গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ » ১৭ কার্যদিবসে বন্ধ হয়েছে ২০ টি ফ্যাক্টরি বললেন বিজিএমইএ সভাপতি, আসন্ন বাজেটে পোশাক শিল্পে নগদ প্রণোদনা দাবি


১৭ কার্যদিবসে বন্ধ হয়েছে ২০ টি ফ্যাক্টরি বললেন বিজিএমইএ সভাপতি, আসন্ন বাজেটে পোশাক শিল্পে নগদ প্রণোদনা দাবি

আমাদের নতুন সময় : 16/05/2019

স্বপ্না চক্রবর্তী : কারখানার ব্যয়ভার বহন করতে না পেরে গত ১৭ কার্যদিবসে ২০টি পোশাক কারখানা বন্ধ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এর সভাপতি রুবানা হক। তিনি বলেন, পোশাক খাতের খরচ এতো বেশি বেড়ে গিয়েছে যে অনেক মালিকই বাধ্য হচ্ছেন কারখানা বন্ধ করে দিতে। এতে করে যেমন উৎপাদন কমছে তেমনি বেকার হয়েছে পড়ছে অনেক শ্রমিক। তবে কারখানা মালিকদের সম্মানজনকভাবে এই খাত থেকে বের হওয়ার জন্য এক্সিট পলিসির দাবি করেন তিনি।

গতকাল বুধবার আসন্ন বাজেট ভাবনা নিয়ে বিজিএমইএর পক্ষ থেকে কি দাবি আছে জানতে চাইলে রুবানা হক এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আসন্ন বাজেটে পাঁচ বছরের জন্য তৈরি পোশাক শিল্পের প্রচলিত ও অপ্রচলিত সব ধরনের পণ্যের জন্য ৫ শতাংশ হারে নগদ প্রণোদনার দাবি জানান। তিনি বলেন, এ খাতের শ্রমিকদের বেতন বেড়েছে, জ্বালানির দাম বেড়েছে, কমপ্লায়েন্স সম্পর্কিত ব্যয় বেড়েছে। অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে পোশাক খাতের পণ্যের দাম কমে গিয়েছে। তাই আমি মনে করি পোশাক খাতের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করার জন্য ক্রেতাদের ক্রমাগত চাপের ফলে বৈশ্বিক বাজারে আমাদের তৈরি পোশাক খাতের বাজার হারানোর আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া কমপ্লায়েন্সের মান নিশ্চিত করতে না পারায় গত চার বছরে প্রায় এক হাজার ২০০ কারখানা বন্ধ হয়েছে। এসব নানাবিধ সমস্যার মধ্যে পোশাক শিল্পকে এগিয়ে নিতে ৫ শতাংশ প্রণোদনা জরুরি। তাই আমরা আসন্ন বাজেটে এই প্রণোদনার নিশ্চয়তা চাই।

রুবানা হক বলেন, বাংলাদেশে উৎপাদিত তৈরি পোশাকের দাম অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশ কম এবং পণ্যের কম দামের কারণে এ খাতের উদ্যোক্তাদের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা বেশ কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ২০১৩ সাল থেকে বাংলাদেশের পোশাক পণ্যের দাম বছরে গড়ে ০.৭৪ শতাংশ হারে কমছে। এর উপর প্রস্তাবিত গ্যাসের দাম বাড়ানো হলে বিদ্যুতের দাম বাড়বে ৬০ শতাংশ, যা পোশাক খাতের উৎপাদান ব্যয় প্রায় ৯ শতাংশ হারে বাড়াবে। তৈরি পোশাক রপ্তানিতে আমরা চীনের পরই দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছি। এই খাতটিকে বাঁচাতে আসন্ন বাজেটে নগদ প্রণোদনার কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]