সৌম্যের মতো এতো কর্তৃত্ব নিয়ে ব্যাট করতে কোনো বাংলাদেশিকে খুব কম দেখেছি

আমাদের নতুন সময় : 19/05/2019

আতিক খান

সহজ ম্যাচটা কিছুটা কঠিন করে জিতলো। অবশ্য এটুকু টেনশন না থাকলে কাপ জয়টাও এতো আনন্দের হতো না। সৌম্যের মতো এতো কর্তৃত্ব নিয়ে ব্যাট করতে কোনো বাংলাদেশিকে খুব কম দেখেছি। ১৪০ কি.মি. বলকে উইকেটে হেঁটে বেড়িয়ে ছক্কা মারা! ওর ইনিংসটাই জয়ের পথ দেখিয়েছে। পর পর ৩টা ফিফটি… ওয়াউ! সহজ ম্যাচটা কঠিন করেছে তামিম আর মিঠুন। দুর্দান্ত ফর্মের সৌম্যকে সিঙ্গেলস নিয়ে ব্যাট করতে না দিয়ে একবার লাইফ পাওয়ার পরও বারবার উইকেট ছেড়ে তামিম আকাশে বল তুলে দিয়েছে…।
৪ উইকেট পড়ার পর, ওভারে ৭.৬ করে রান লাগবে আর এ সময় মিঠুনের রিভার্স সুইপ খেলা…মুশফিকের এলবিডবিøউ লেগ স্ট্যাম্পের ৬ ইঞ্চি বাইরে ছিলো আইরিশ আম্পায়াররাও কানা হয়! সাব্বির আগে দুইবার শূন্যতে নট আউট ছিলো। এবার সুযোগ পেয়েও শূন্য। সাব্বিরকে আমার বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে দুর্বল লিংক মনে হয়, আত্মবিশ্বাসহীন। মোসাদ্দেককে ৭ নম্বরে সাব্বিরের জায়গায় নিয়মিত চাই। সঙ্গে ওর বোলিং বোনাস। মোসাদ্দেকের ছক্কাগুলো বুকে কি যে শীতল বাতাস বইয়ে দিয়েছে… ২০ বলে ফিফটি… খুব বিশাল অর্জন হয়তো নয়। আয়ারল্যান্ড আর খর্বশক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে টুর্নামেন্ট জেতা। তবু চারটা ম্যাচ ডমিনেট করে পর পর জয় অবশ্যই আমাদের জন্য চোখের প্রশান্তি আর দলকে অবশ্যই আত্মবিশ্বাসী করবে। অভিনন্দন মাশরাফি আর টাইগারদের। অভিনন্দন মোসাদ্দেক ম্যান অফ দ্য ম্যাচ। ক’দিন আগেই কারা জানি বলছিলো, মাশরাফি কখনো কাপ জিতেনি! ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]