মাদারীপুরে স্কুলছাত্রীকে যৌন নির্যাতন জড়িত পুলিশ সদস্য কারাগারে

আমাদের নতুন সময় : 22/05/2019

আরিফুর রহমান : মাদারীপুরে দশম শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা ও নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য মোক্তার হোসেনকে গ্রেপ্তারের পর তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলার মূখ্য বিচারিক হামিক মোহাম্মদ হোসেন আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এদিকে মোক্তারের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি। এর আগে সোমবার মধ্যরাতে ওই ছাত্রীর মামা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় মোক্তারকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ৯ এর ১ ধারায় একটি মামলা করেন। পরে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

স্থানীয় ও মামলা বিবরণে জানা গেছে, মাদারীপুর পুলিশ লাইনের পুলিশ সদস্য মোক্তার  হোসেন দীর্ঘদিন থেকে শহরের টিবি ক্লিনিক সড়কে ভাড়া থাকেন। কয়েক দিন আগে  মোক্তারের গর্ভবতী স্ত্রী গ্রামের বাড়ি চলে যায়। এই সুযোগ রবিবার রাতে শহরের টিভি ক্লিনিক সড়কের প্রতিবেশী এক স্কুলছাত্রীকে ঘরে ডেকে নেন। এসময় দরজা বন্ধ করে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। এসময় স্কুল ছাত্রী চিৎকারে বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দেন। এক পর্যায়ে মোক্তার বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই স্কুলছাত্রীকে ঘরের পেছনের ভেন্টিলেটর ভেঙ্গে নিচে ফেলে দেয়। এতে গুরুতর আহত হয় ওই স্কুলছাত্রী। পরে স্থানীয়রা ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

 

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে মাদারীপুর সদর হাসপাতালের কর্ত্যবরত চিকিৎসক অখিল সরকার বলেন, ‘ওই স্কুলছাত্রী এখন অনেকটা সুস্থ্য। তার ডান পা ভেঙে যাওয়াতে পায়ে গোড়ালি থেকে হাঁটু পর্যন্ত ব্যান্ডিসে মোড়ানো আছে। সে স্বাভাবিক ভাবে হাটাচলা করতে একটু সময় লাগবে। আরো কয়েকদিন তাকে হাসপাতালে রেখে তারপর ছাড়পত্র দেয়া হবে।’ ধর্ষণের বিষয় জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, ‘কিছু আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]