কেন জিতলেন নরেন্দ্র মোদী?

আমাদের নতুন সময় : 25/05/2019

জুলহাস আলম

১. নেতা হিসাবে নরেন্দ্র মোদীর ক্যারিশমা। অনেক মানুষ বিজেপির প্রতি সন্তুষ্ট নন, কিন্তু মোদীকে অস্বীকার করতে পারেনি। ২. মোদী একজন বড় মার্কেটিয়ার, একজন বড় সেলসম্যান, তিনি জানেন কীভাবে মানুষের কাছে নিজেকে তুলে ধরতে হয়। ৩. মোদীকে ভারতের দরিদ্র জনগোষ্ঠী নিজেদের গোত্রের মনে করেন, তারা মনে করেন মোদী নিজেও তো একজন গরিব মানুষ। অন্যদিকে রাহুল গান্ধীকে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর একটা বিশাল অংশ রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক এলিট ও দুর্নীতিবাজদের প্রতিনিধি মনে করেন। ৪. মোদীর বডি ল্যাঙ্গুয়েজ সাধারণ মানুষকে বেশ আকৃষ্ট করে, জনসভায় তিনি যখন কথা বলেন উপস্থিত মানুষের কাছ থেকে তার সিদ্ধান্তের প্রতি অনুমোদন নিয়ে নেন, কখনো কখনো হাত তুলিয়ে।
৫. ভারতের প্রবাসী নাগরিকদের কাছে, বিশেষ করে ইউরোপে যারা বাস করেন, একটা সেলিব্রেটি ইমেজ তৈরি হয়েছে। বিদেশ সফরকালে তিনি ব্যাপকভাবে ভারতীয়দের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে পেরেছেন। প্রবাসী ভারতীয়রা, বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম মনে করে মোদী বিশ্বের কাছে ভারতকে পরিচিত করে তুলছেন নতুনভাবে। ৬. ভারতে সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দুদের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য যে প্রদেশে যা প্রয়োজন সেরকম চমক দেখানো প্রকল্প হাতে নিয়েছেন, তাতে সাফল্য এসেছে। ৭. মোদীর ব্যক্তিগত ইমেজ নিয়ে আপাতত তেমন কোনো বিতর্ক নেই সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের কাছে, তাকে একজন সৎ মানুষ হিসেবেই মনে করে মানুষ। ৮. পশ্চিমবঙ্গের মতো এলাকায় মমতা ব্যানার্জীর আমলের সুশাসনের ঘাটতিকে কাজে লাগিয়েছেন। ৯. ডিমনেটাইজেশনের ফলে দরিদ্র, নিম্নমধ্যবিত্ত, মধ্যবিত্তদের একটা বিরাট অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও এবং উচ্চবিত্তদের লাভ হলেও ধর্মীয় ও হিন্দু জাতীয়তাবাদী বোধের উন্মাদনার কারণে ক্ষতিগ্রস্তরা ক্ষতির কথা ভুলে গেছে। পাশাপাশি সবসময় দ্বিধাগ্রস্ত মধ্যবিত্ত সবশেষে মোদীকেই বেছে নিয়েছে। ১০. সংখ্যালঘু মুসলমান ও খ্রিস্টানসহ অন্যদের বিষয়ে স্পষ্ট ম্যাসেজ দেয়ায় সংখ্যাগরিষ্ঠ সাধারণ হিন্দু ভোটাররা মোদীর উপর খুশি। ১১. মোদী মিডিয়াকে দক্ষতার সঙ্গে ম্যানেজ করেছেন নানা উপায়ে। ১২. বিরোধী শক্তির মধ্যে পুরানো ‘ডিভাইড এন্ড রুল’ পলিসি কার্যকরভাবে বাস্তবায়ন করেছেন। ১৩. উত্তরাধিকারের রাজনীতির বাইরে নতুন শক্তিকে মানুষ পছন্দ করছে এবং মোদী যে সেই বৃত্ত ভেঙেছেন সেটা মানুষ পছন্দ করছেন, বিশেষ করে নতুন প্রজন্ম। ১৪. মোদীকে রাহুল গান্ধীর চেয়ে অনেক বেশি দক্ষ ও পরিপক্ব মনে করে মানুষ। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]