• প্রচ্ছদ » গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ » বগুড়া নির্বাচনে অংশগ্রহণে তারেকের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ খালেদা জিয়া, মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না করে তার অমতের কথা জানালেন


বগুড়া নির্বাচনে অংশগ্রহণে তারেকের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ খালেদা জিয়া, মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না করে তার অমতের কথা জানালেন

আমাদের নতুন সময় : 25/05/2019

শাহানুজ্জামান টিটু : বগুড়া পুনর্নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ খালেদা জিয়া। মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না করে তা ফেরত পাঠালেন। ফলে শেষ মুহূর্তে বগুড়ার ওই আসনে খালেদা জিয়ার মনোনয়ন থেকে পিছিয়ে আসতে হয়েছে বিএনপিকে। আর দলপ্রধানের এমন সিদ্ধান্ত তারেক রহমানের নেতৃত্বে বড় ধাক্কা বলে মনে করেছেন দলের কেউ কেউ। বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, দলের সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে ঢাকার নেতাদের গুরুত্ব দিতে হবে। কারণ তিনি তো সার্বিক অবস্থা জানেন না। যারা এখানে রাজনীতি করছেন, সিদ্ধান্ত তাদের নিতে দেয়া উচিত। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বগুড়া নির্বাচনে খালেদা জিয়ার মনোনয়নসহ নির্বাচনে অংশ নেয়ার বিষয়টি কৌশলে এড়িয়ে বলেন, এ বিষয়ে আমার মন্তব্য করা ঠিক হবে না। দলের মুখপাত্র রয়েছেন তিনিই বলবেন।

জানা গেছে, তারেক রহমান সিদ্ধান্ত নেয়ার পর খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র স্বাক্ষরের জন্য কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেন তার একাস্ত সচিব এবিএম আবদুস সাত্তার। কারা কর্তৃপক্ষ মনোনয়নপত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পাঠিয়ে দেয়। চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়া মনোনয়নপত্র দেখেই ক্ষুব্ধ হন।

বিএনপির এক নেতা জানান, একাদশ সংসদ নির্বাচনে যাওয়ার বিষয়ে খালেদা জিয়ার আপত্তি ছিলো। এছাড়া এমপিদের শপথ নেয়ার বিষয়ে তিনি ক্ষুব্ধ। এমন অবস্থায় বগুড়া উপনির্বাচনে দলের অংশগ্রহণের বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে কোনো আলোচনা করা হয়নি। কারাগারে যাওয়ার আগে থেকে এখনো পর্যন্ত তিনি বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ না নেয়ার পক্ষে। তিনি বলেন, বিতর্কিত সংসদ নির্বাচনের পর যেখানে দল উপজেলা নির্বাচন ঘোষণা দিয়ে বর্জন করেছে। সেখানে দলের মহাসচিবের শূন্য আসনে অংশগ্রহণ করা ঠিক নয়।

খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর করেননি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার একান্ত সচিব এবিএম আবদুস সাত্তার। তিনি জানান, বেগম জিয়ার কাছে মনোনয়নপত্র পাঠানো হলেও তিনি তাতে স্বাক্ষর করেননি। তিনি নির্বাচনে করতে রাজি নন বলে জানিয়েছেন।

এমপিদের শপথ ইস্যুতে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়ে বিএনপির নীতিনির্ধারকরা। এই বিভক্তির মাত্রা আরো ছড়িয়েছে বগুড়া পুনর্নির্বাচনে অংশগ্রহণ সিদ্ধান্তে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বগুড়ার নেতাদের সঙ্গে আলাপ করে সিদ্ধান্ত দেন নির্বাচনে অংশ নেয়ার। জানা গেছে, নির্বাচনে অংশ নেয়ার বিষয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কোনো আলোচনা হয়নি। দলের সিনিয়র নেতাদের অধিকাংশ এই নির্বাচনে না যাওয়ার পক্ষে তারেক রহমানকে জানিয়েছেন। তাদের সিদ্ধান্তকে পাত্তা না দিয়ে তারেক রহমান বগুড়ার জেলা নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে এককভাবে এই সিদ্ধান্ত নেন। তার অনুসারীদের কেউ কেউ বলছেন, বগুড়া নির্বাচনে খালেদা জিয়াকে মনোনয়ন দেয়ার বিষয়ে জেলা নেতারা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে অনুরোধ জানান। তিনি তাদের এই অনুরোধ রাখতেই দলের চেয়ারপারসনের মনোনয়ন ফরম জমার বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেন। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]