দুই বছরেও শেষ হয়নি রাজশাহীর সবচেয়ে বড় জঙ্গিবিরোধী অভিযানের তদন্ত কাজ

আমাদের নতুন সময় : 27/05/2019

মঈন উদ্দীন : রাজশাহীর সবচেয়ে বড় জঙ্গিবিরোধী অভিযান ‘অপারেশন সান ডেভিল’র মামলার তদন্তকাজ শেষ হয় নি দুই বছরেও।  এ মামলার এজাহারভুক্ত এক শীর্ষ জঙ্গির নাগালই পাওয়া যাচ্ছে না। তার খোঁজে রয়েছে পুলিশ। ফলে মামলার তদন্তে ধীরগতি। এতে হতাশা প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

গত ২০১৭ সালের ১১ মে গোদাগাড়ী উপজেলার বেনীপুর গ্রামের ফেরিওয়ালা সাজ্জাদ আলীর বাড়ি ঘিরে অপারেশন ‘সান ডেভিল’পরিচালনা করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। অভিযানে নিহত হয় সাজ্জাদ আলী মিষ্টু (৫০), তাঁর স্ত্রী বেলী বেগম (৪৫), ছেলে আল-আমিন (২০) ও মেয়ে কারিমা খাতুন (১৭) এবং বহিরাগত আশরাফুল (২৫)। জঙ্গিদের ছোঁড়া বিস্ফোরণে আহত হয় চার পুলিশ সদস্যও। আর তাদের হামলায় নিহত হন ফায়ার সার্ভিসের ফায়ারম্যান আব্দুল মতিন।

এসময় দুই শিশু সন্তানসহ পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে সাজ্জাদের মেয়ে সুমাইয়া। এ ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করেন গোদাগাড়ী থানার এসআই নাঈমুল হক।

 

এবিষয়ে রাজশাহীর পুলিশ সুপার মো. শহিদুল্লাহ্ সাংবাদিকদের বলেন, মামলাটি ক্রিটিক্যাল। তাই পুরো প্রক্রিয়া ও পরিস্থিতি বুঝে এগুতে হচ্ছে। এজন্য সময় লাগছে। অধরা ওই আসামি ( তদন্তের স্বার্থে নাম প্রকাশ করা হলো না) সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যই পাওয়া গেছে। সে বড় মাপের জঙ্গি, তাও নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। ওই জঙ্গি জেএমবির সঙ্গে জড়িত। কিন্তু তার অবস্থান সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। তবে শিগগিরই সে পুলিশের জালে ধরা পড়বে বলে আশা করছেন এসপি। সম্পাদনা : বাহাউদ্দিন

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]